এই গ্রামে ঘুম ভাঙায় কাঞ্চনজঙ্ঘা, পাহাড়ের গা ঘেঁষে প্রকৃতির নজরকাড়া সৌন্দর্য, যাবেন নাকি

0
2013

খাস ডেস্ক: কংক্রিটের শহরে সারদিনের ব্যস্ততা! একটু ফাঁকা সময় পেলে যেন হাফ ছেড়ে বাঁচা যায়। কয়েকদিন নিরিবিলিতে সময় কাটাতে ভ্রমণপ্রিয় বাঙালিরা ছোটেন পাহাড়ের উদ্দেশ্যে। বছরের প্রায় বারো মাসই উত্তরবঙ্গে পর্যটকদের আনাগোনা লেগে থাকে। কিন্তু জানেন কি, দার্জিলিং, কালিম্পং, ছাড়াও এমন কিছু জায়গা রয়েছে যেখানে গেলে আর ফিরতে মন চাইবে না আপনার। আজ এমনই একটি গন্তব্যের খোঁজ রইল।

কালিম্পঙে পাহাড়ের বেশ উঁচুতে একটি ঢাল বেয়ে রয়েছে ছোট্ট গ্রাম ইচ্ছেগাঁও (icchegaon)। এই গ্রামে ঘুম পাড়ায় কাঞ্চনজঙ্ঘা এবং ঘুম থেকে জাগায় কাঞ্চনজঙ্ঘা। এখানে এলে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তর অপরূপ দৃশ্য একেবারেই মিস করা যাবে না।

- Advertisement -

 

ভোরের আলোয় কাঞ্চনজঙ্ঘার মনোরম দৃশ্য! শান্ত, নিরিবিলি পরিবেশ। এখানে পাহাড়ের গা দিয়েই হোটেল-রিসর্ট-হোম স্টে রয়েছে। ঘুরতে আসলে অনায়াসেই হয়ে যাবে থাকার ব্যবস্থা।

ইচ্ছেগাঁও-এর (icchegaon) ঠিক উপরেই রয়েছে সিলারিগাঁও নামের একটি গ্রাম। ট্রেকিং পছন্দ হলে ভোর ভোর রওনা দিতে পারেন। আসা যাওয়া মিলে সময় লাগবে তিন ঘণ্টা। এছাড়া, ডেলো পাহাড়, থারপা তোলিং মঠ, লেপচা জাদুঘর, টিফিনদারা ভিউ পয়েন্ট ঘুরে দেখতে পারেন।

আরও পড়ুন: শীতের আমেজ গায়ে মেখে রূপনারায়ণের তীরে ঘুরে আসুন শরৎচন্দ্রের বাড়ি

কীভাবে যাবেন?

নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে কালিম্পং যাওয়ার জন্য ছোট গাড়ি, বাস পেয়ে যাবেন। কালিম্পং শহর থেকে ইচ্ছেগাঁও পৌঁছাতে ঘণ্টাখানেক সময় লাগবে।

আরও পড়ুন: কলকাতার কাছেই রয়েছে ‘মিনি গোয়া’, কর্মব্যস্ততার মাঝে ছুটিতে ঘুরে আসুন