দুর্নীতির শিকড় খুঁজতে এবার পর্ষদ অফিসে সিবিআইয়ের হানা

0
17

কলকাতা: সাত সকালে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের অফিসে হানা সিবিআইয়ের৷ প্রাথমিকে নিয়োগ দুর্নীতি মামলার তদন্ত করতে বৃহস্পতিবার সল্টলেকে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের অফিসে আসে ছয় সদস্যের সিবিআইয়ের প্রতিনিধি দল।

সূত্রের খবর, প্রাইমারি স্তরে ২৬৯ জনের নিয়োগ মামলার তদন্তে পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আজ সল্টলেকের ডিরোজিও ভবনে সকাল ৯:১৫ নাগাদ আসে সিবিআই দল। তবে কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় না থাকায় এই মুহূর্তে পর্ষদের অ্যাডমিন পারমিতা রায়কে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন সিবিআইয়ের আধিকারিকেরা৷

- Advertisement -

বস্তুত, আদালতের নির্দেশে প্রাথমিকে নিয়োগ কেলেঙ্কারির তদন্তের নির্দেশ বুধবার জারি করেছেন কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়৷ বিচারপতির নির্দেশ, প্রাথমিকে নিয়োগ কেলেঙ্কারির তদন্তে সিবিআইকে স্পেশ্যাল ইনভেসটিগেশন টিম বা সিট গঠন করতে হবে৷ যাতে মামলা চলাকালীন ওই অফিসারদের অন্য কোনও ক্ষেত্রে স্থানান্তর না করা হয়৷ সূত্রের খবর, আদালতের নির্দেশের পরই বিশেষ দল গঠন করে সিবিআই৷ এদিন ওই দলের ছ’জন সদস্য হানা দিয়েছেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের অফিসে৷

ঘটনার সূত্রপাত, সম্প্রতি প্রাথমিকে টেট কেলেঙ্কারির ঘটনায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়৷ একই সঙ্গে ২০১৭ সালে প্রকাশিত চাকরির দ্বিতীয় তালিকায় নাম থাকা ২৬৯ জন প্রাথমিক স্কুল শিক্ষককে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন৷ কাকতালীয়ভাবে, ওই তালিকার সিংহভাগ চাকরি প্রার্থীরা তৃণমূল ঘনিষ্ট হলেও বর্ধমানে সামনে এসেছে উলোটপুরাণ৷ কালনার দাপুটে সিপিএম নেতা বীরেন্দ্রনাথ বসুমল্লিকের মেয়ে বৈশাখী বসুমল্লিকের নাম রয়েছে বরখাস্তের তালিকায়৷ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য৷ পুরো ঘটনার তদন্তে নেমেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার কর্তারা৷

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতি নির্বাচন: দেশ বাঁচাতে মমতার হাতই ধরল বামেরা, সনিয়াও