রাস্তায় অটো থেকেও নেই , সপ্তাহের প্রথম দিনেই ভোগান্তিতে নিত্যযাত্রীরা

0
34

কলকাতা: সপ্তাহের প্রথম দিন। অফিস টাইম। রাস্তায় অটো থেকেও নেই। অটো পেলেও ভাড়াও চাইছে দ্বিগুন।বাসেও বাদুরঝোলা ভিড়। যাত্রীরা ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে বাসের অপেক্ষায়। এমনই চিত্র দেখা গিয়েছে কলকাতার ব্যস্ততম উল্টোডাঙা স্টেশন চত্বরে।

আরও পড়ুনঃ সোমবার দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু ও শিক্ষা সচিবকে রাজভবনে তলব রাজ্যপালের

বিধাননগর থেকে বন্ধ একাধিক রুটের অটো পরিষেবা। উল্টোডাঙা-করুণাময়ী, উল্টোডাঙা-বাগুইহাটি, লেকটাউন, এয়ারপোর্ট, শোভাবাজার সহ বেশ কয়েকটি রুটের অটো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ তুলে আজ অটো বন্ধ রেখে প্রতিবাদে সামিল হলেন চালকরা। একেই সপ্তাহের প্রথমদিন তারওপর অফিস টাইম, অটো বন্ধ থাকায় সমস্যায় পড়েছেন যাত্রীরা।

অটোচালকদের দাবি, পুলিশের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল বাগুইহাটি সল্টলেক রুটের যে সমস্ত অটো উল্টোডাঙায় পৌঁছাবে সেই সমস্ত অটোগুলো মুচিবাজার উল্টোডাঙ্গা থানার ক্রসিং থেকে ঘোরানো হচ্ছিল।পরবর্তী সময়ে গৌরি বাড়ি ব্রিজের কাছে গীতাঞ্জলি ক্রসিং থেকে অটো ঘুরিয়ে পুনরায় আসতে দু কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে বাড়তি খরচ করতে হচ্ছে গ্যাস। এই দাবি নিয়েই আজ বাগুইআটি থেকে উল্টোডাঙ্গা সল্টলেক থেকে উল্টোডাঙ্গা রুটে সমস্ত রুটের অটো পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

অবশেষে অটো ইউনিয়নের সঙ্গে পুলিশের আলোচনা হয়। সেই আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়, সাতদিনের জন্য ১৫ বাস স্ট্যান্ড মোড় হয়েই অটো ঘোরাতে পারবে। এরপরই অটোচালকরা অটো চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়। সাতদিন পর পুনরায় অটো ইউনিয়ন গুলির সঙ্গে পুলিশ আলোচনায় বসবে। তারপর নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। মূলত যানজট কমাতে গৌরিবাড়ি ব্রিজের কাছে গীতাঞ্জলি ক্রসিং হয়ে অটো ঘোরানোর কথা বলা হয়েছিল পুলিশের পক্ষ থেকে।