হাতে কামড়ে দিয়েছিলেন পুলিশ, চার মাস পরেও মিলল না সুবিচার

0
61

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা: রাজ্য হিউমান রাইটস কমিশনে এলেন অরুনিমা পাল। একটি মিছিলে পুলিশ তাঁর হাতে কামড়ে দিয়েছিলেন৷ সেই ঘটনায় কোনো সুবিচার না পাওয়ার অভিযোগ রয়েছে অরুনিমা পালের৷ আর সেই কারণেই অভিযোগ জানান তিনি৷ সেই অভিযোগের পরিপেক্ষিতে শুক্রবার তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। ডাকার পরও তাঁর কোনো স্টেটমেন্ট নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ৷ আর তাতেই ক্ষুব্ধ অরুনিমা পাল।

তিনি দাবি করে বলেন, ‘‘শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গ মানবাধিকার কমিশনে এসেছি। বৃহস্পতিবার একটি মেল করে আমাকে ডাকা হয়েছে। চার মাস আগে রাজ্য মানবাধিকার কমিশন ও মহিলা কমিশনকে আমার ওপর আক্রমণ হয়েছিল৷ পুলিশ কামড়ে দিয়েছিল আমায়৷ সেক্ষেত্রে আমার অভিযোগগুলো জানিয়ে ছিলাম। কিন্তু এতো গুলো মাস পেরিয়ে গেলেও কোনো রকম সদুত্তর আমি পাইনি।’’

- Advertisement -

অরুনিমা আরও বলেন, এক সপ্তাহ আগে পশ্চিমবঙ্গ মহিলা কমিশন থেকে একটা চিঠি আমার কাছে আসে৷ তাতে দেখা যায় যে বিভাগীয় তদন্তে ওই মেয়েটির যে দোষী সেটা বলা হয়েছে এবং তার এগেন্সটে কি স্টেপ নিয়েছে তাকে ১৫ দিনের জন্য সেন্সর করেছে এবং তাকে কাউন্সিলিং করতে পাঠিয়েছে। আমরা চাইছি ন্যায্য বিচার। পুরো বিষয়টাতে আমার যেন মনে হচ্ছে কোথাও যেন আমি সেন্ট্রাল কমিশনকে জানানোর পরে তাঁদের এই তৎপরতা। মুখ্যমন্ত্রীর দফতরেও আমি একই অভিযোগ জানাই সেখান থেকে আজও পর্যন্ত কোনো রকম উত্তর পাইনি।’’

অরুনিমা পালের অভিযোগ তাঁকে হিউম্যান রাইটস কমিশন ডেকে পাঠানোর পরে আজ তিনি এসে দীর্ঘক্ষণ বসে থাকার পরেও একজন আধিকারিক এসে জানান তার স্টেটমেন্ট নেবেন এমন সময় জানান ইমারজেন্সি তাঁদের বেরিয়ে যেতে হবে। তাঁর কথায়, ‘‘আমাকে ডেকে আনা হলো চার মাস পরে আমি জানতে চাইলাম ডিসেম্বর মাসে আমি যে চিঠি করেছিলাম তার এগেনস্টে টাকা হয়েছে জানালেন না। শুয়ো মোটো কেসের ভিত্তিতে অর্থাৎ পেপারে দেখে শত প্রণোদিতভাবে তারাই কাজটা করছেন। দুর্ভাগ্যজনক পশ্চিমবঙ্গবাসী হিসেবে আমার স্টেটমেন্ট আজকে নেওয়া হলো না আমাকে আবার বলা হল মঙ্গলবার দিন আসার জন্য।’’