বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ, গ্রেফতার আরজিকরের চিকিৎসক

0
151

কলকাতা : ধর্ষণের অভিযোগ উঠল এবার আরজিকরের চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। বুধবার অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে লেকটাইউন থানার পুলিশ। জানা গিয়েছে, ধর্ষণ ও প্রতারণার মামলা দায়ের করা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগকারী ওই হাসপাতালেরই নার্সিং-এর ছাত্রী।

সুত্রের খবর অনুসারে, ঘটনার সূত্রপাত ২০২১ সালে। আরজিকর হাসপাতালেই ওই বিএসসি নার্সিং এর ছাত্রীর সঙ্গে আলাপ হয় চিকিৎসকের। ছাত্রীর পিসি শারীরিক অসুস্থ অবস্থায় আরজিকরে ভর্তি ছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর চিকিৎসা করছিলেন ওই ডাক্তার। সেখানেই পরিচয় হয় ওই ছাত্রীর সঙ্গে। আস্তে আস্তে সম্পর্ক পিসির চিকিৎসা সংক্রান্ত থেকে ব্যক্তিগত হতে শুরু করে। তারপরেই ফন নম্বর আদান প্রদান এবং দুজনের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি হয়।

পুলিশ সূত্রে জান গিয়েছে, বীরভূমের সিউড়ির বাসিন্দা ওই ছাত্রীকে কলকাতার এই চিকিৎসক বিয়ের প্রস্তাব পর্যন্ত দেন। সম্পর্ক অনেকটাই ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠে। পাতিপুকুরে একটি বাড়ি ভাড়া নেওয়া ছিল চিকিৎসকের। সেখানে যাতায়াতও শুরু করে ওই নার্সিং এর পড়ুয়া। অভিযোগ, ওই ছাত্রী পরে বিয়ের কথা বললে সেক্ষেত্রে বেঁকে বসেন চিকিৎসক। বহুবার বিয়ের জন্য বলতে থাকলে তাতে রাজি হননি চিকিৎসক। এরপরেই পুলিশের শরণাপন্ন হন ওই ছাত্রী। ২৮ জুন এই অভিযোগ দায়ের করা হয় লেকটাউন থানায়। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই চিকিৎসককে গ্রেফতার করে বিধান নগর মহকুমা আদালতে পেশ করা হয়। বর্তমানে পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন চিকিৎসক।