‘নতুন শহরে নতুন পুজো’, এবার নিউটাউনে সর্বজনীন দুর্গোৎসবের পরিকল্পনা

0
131

নিউটাউন: আর হাতে কয়েকদিনটা বাকি। তার পরেই বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো। চারিদিকে আলোর সাজে সেজে উঠবে গোটা কলকাতা নগরী। আনন্দে মেতে উঠবেন শহরবাসী।

দুর্গাপুজো শুধু পুজো নয়, দুর্গাপুজো আমাদের কাছে এক ধরনের আবেগ, নস্ট্যালজিয়া, অনুভূতি, ভালোবাসা আর ভালো থাকার অন্যতম কারণ। আমরা ৩৬৫ দিন অপেক্ষায় থাকি কবে মা আসবেন আমাদের কাছে। ওই চারদিন আমরা সকলেই রোজকারের এক ঘেয়েমি জীবন, দুঃখ, কষ্ট ভুলে খুশিতে মেতে উঠি। ঠিক এই রকমই এক খুশির খবর রইল গোটা নিউটাউন বাসীদের জন্য।

আরও পড়ুন-Pallavi Dey: লিভ-ইন পার্টনার সাগ্নিককে ৯ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ আদালতের

‘নতুন শহরে নতুন পুজো’ নিয়ে হাজির নিউটাউন সর্বজনীন। এবার নিউটাউনের বুকে সর্বজনীন দুর্গাপুজোর আয়োজন করতে চলেছে নিউটাউন সর্বজনীন সমিতি। আর এই সুখবরটি বুধবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে লোগো উন্মোচনের মাধ্যমে এই সংবাদটি জানায় নিউটাউন সর্বজনীন পুজো সমিতি।

জানা গিয়েছে, নিউটাউনে এবছর ক্লক টাওয়ার সংলগ্ন মাঠে প্রথম সর্বজনীন দুর্গোৎসব হতে চলেছে। নিউটাউন সর্বজনীন সমিতি দ্বারা পরিচালিত এই উৎসবে আছে মেলাও। তাছাড়া আছে আড্ডা জোনও। যার ফলে অনেকেই আশা করেছেন এই পুজোর জেরে স্থানীয় অর্থনীতি ও চাঙ্গা হবে। তাছাড়াও এই দুর্গোৎসবকে সর্বতোভাবে সাহায্য করছেন হিডকো এবং এন কে ডি এ। পাশে আছে স্লেট পেন্সিল নিউটাউনও। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে এই কথাগুলি জানালেন উপদেষ্টামণ্ডলীর অন্যতম এন কে ডি এ-র চেয়ারম্যান শ্রী দেবাশিস সেন।

আরও পড়ুন-শেষরক্ষা হল না, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মামলা ফেরাল ডিভিশন বেঞ্চ

সূত্রের খবর, এই দুর্গোৎসবের লোগো তৈরি করেছেন প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী শ্রী শুভাপ্রসন্ন।  সেই লোগো ও আজ উন্মোচিত হল। এদিন অনুষ্ঠানে সমিতির অন্যান্য সদস্য সদস্যাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সম্পাদক শ্রী সমরেশ দাস এবং সভাপতি ঊর্মিলা সেন। এই দুর্গোৎসবের থিম হবে নারী শক্তির জাগরণ। প্রতিমা নির্মাণে আছেন প্রখ্যাত শিল্পী ও ভাস্কর শ্রী প্রশান্ত পাল। খুঁটি পুজো অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৩ জুলাই, ২০২২।

প্রসঙ্গত, এর আগে প্রায় ৯০ টি পু জো হলেও নিউটাউনে কোনও সর্বজনীন দুর্গাপুজো হয়নি। তাই এবারের অভিনব আয়োজন নিয়ে বেশ উৎসাহী নিউটাউনবাসীরা। যদিও বেশ কিছুদিন আগে কলকাতার দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ তকমা দিয়েছে ইউনেসকো। রাষ্ট্রপুঞ্জের ‘ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ’তালিকায় নাম জুড়েছে বাংলার দুর্গাপুজোর।