টলি পাড়ায় জয়জয়কার বামপন্থীদের

0
600

কলকাতা: টলি পাড়ায় বিশ্বাস হারালেন বিশ্বাসরা। পাশাপাশি হালে পানি পেল না গেরুয়া শিবির। কার্যত বাম ঘরনার তান্ডবই দেখা গেল আর্টিস্ট ফোরামের নির্বাচনে। বাম ঘেঁষা প্রার্থীদের জয়ের মধ্যে দিয়েই সেই চিত্র পরিষ্কার। টলিউডের আর্টিস্ট ফোরামের সভাপতি পদে সর্বসম্মতিতে নির্বাচিত হয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি সহ সভাপতি পদে এসেছেন শঙ্কর চক্রবর্তী। এই দুই তারকাই বাম শিবির ঘেঁষা বলে জানে সবাই।

গতকাল রবিবারের দুপুর যত বেড়েছে দক্ষিণ কলকাতার যোধপুর পার্কের সামনে ততই বেড়েছে তারকাদের আনাগোনা। মোটামুটি পুরো টলিপাড়া উপচে পড়েছিল যোধপুরপার্ক বয়েজ স্কুলে। তা দেখে উৎসাহী পথচারীদের মনে প্রশ্ন জেগেছিল এখানে কি কোনো সিনেমার শুটিং চলছে? না এদিন ওয়েস্ট বেঙ্গল মোশন পিকচার আর্টিস্ট ফোরামের নির্বাচন। তবে এই নির্বাচন ঘিরে উত্তেজনা ছিল চরমে। এলাকায় ছিল বাড়তি সতর্কতা। বহু তারকা এত জাঁকজমক ও সতর্কতা দেখে বিস্মিত। প্রথমবার এত তৎপরতার সঙ্গে ভোট গ্রহণ পর্ব চলছে বলে দাবি বহু তারকার।

- Advertisement -

লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে বাম শিবির। বাংলা থেকে একটিও আসন পাননি তাঁরা। চলতি বছরেই পুরসভা নির্বাচন আর তার পরের বছরই আছে বিধানসভা ভোট। তাকেই পাখির চোখ করে এগোচ্ছে বাম শিবির। ঘর গোছাতে কোমর বেঁধে নেমেছেন তাঁরা। সেখানেই এই ফলাফল কিছুটা স্বস্তি এনেছে বাম শিবিরে এমনই মনে করছেন অনেকে। যদিও কোনো তারকাই টলি পাড়ায় রাজনৈতিক রঙের কথা মানতে নারাজ। যাঁর অঙ্গুলিহেলনে টালিগঞ্জ পাড়া চলে বলে শিল্পী-কলাকুশলীদের অধিকাংশের মত, সেই অরূপ বিশ্বাসের ভাই স্বরূপ বিশ্বাসও প্রায় একই সুরে বললেন,‘‘যাঁরা আর্টিস্ট ফোরামে রাজনীতি ঢোকানোর চেষ্টা করেছিলেন ধাক্কা তাঁরাই খেয়েছেন। শিল্পীরা একজোট হয়ে তাঁদের প্রত্যাখ্যান করেছেন।’’ তবুও কোথাও গিয়ে এই নির্বাচন ছিল অন্য এক রাজনৈতিক খেলা।