অবিলম্বে বকেয়া DA মেটান, রাজ্যকে কড়া হুঁশিয়ারি বিচারপতির

0
135

কলকাতা: ডিএ ইস্যুতে এবার রাজ্যকে কড়া হুঁশিয়ারি আদালতের৷ বস্তুত, আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও রাজ্য কেন কর্মীদের বকেয়া ডিএ মেটাচ্ছে না, সেই প্রশ্ন তুলেছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মান্থা৷ মনে করিয়ে দিয়েছেন, এভাবে আদালতের নির্দেশ অগ্রাহ্য করা কার্যত আদালত অবমাননার সামিল! একই সঙ্গে অবিলম্বে সরকারি কর্মীদের ডিএ-র বকেয়া টাকা মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি৷

বস্তুত, রাজ্যের কোষাগারে অত টাকা নেই৷ তাই এখনই কর্মীদের বকেয়া ডিএ মেটানো সম্ভব নয় বলে আদালতকে জানিয়েছিল রাজ্য৷ বিচারপতির নয়া নির্দেশের পর রাজ্য কি পদক্ষেপ নেয়, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷ তবে ডিএ ইস্যুতে পঞ্চায়েত ভোটের আগে রাজ্যের চাপ বাড়ল বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল৷ বস্তুত, বকেয়া ডিএ-র দাবিতে কর্মচারীদের একাংশ আন্দোলনে নেমেছেন৷ অবিলম্বে সরকার বকেয়া ডিএ না মেটালে সরকারি অফিস অচল করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা৷ এই আবহে রাজ্য কি পদক্ষেপ গ্রহণ করে, এখন সেদিকেই নজর রাখছে সব মহল৷

- Advertisement -

বস্তুত, এদিন ডিএ মামলাটি উঠতেই রাজ্য সরকারকে তীব্র ভর্ৎসনা করে বিচারপতি বলেন, ‘‘আন্দোলনকারীরা তো কোনও অন্যায্য কথা বলছেন না৷ বছরের পর বছর তাদের কাছ থেকে সার্ভিস নিয়েছেন। আর বকেয়া আর্থিক পাওনা দেওয়ার সময় তাদের হ্যারাস করছেন? কেন?’’ প্রশ্ন তুলেছেন, ‘কাল যখন আপনার সঙ্গে হবে তখন আপনি কী করবেন?’’ দৃশ্যতই হতভম্ব দেখিয়েছে সরকারি আইনজীবীকে৷ এরপরই রাজ্যকে দ্রুত কর্মচারীদের বকেয়া মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন বিচারপতি৷ ইতিমধ্যে আন্দোলনকারীরা ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে রাজ্য জুড়ে কর্মবিরতির কর্মসূচি নিতে চলেছেন। প্রথমে ১ দিনের প্রতীকি কর্মবিরতি পালন করবেন তাঁরা। দাবি না মানা হলে লাগাতার কর্মবিরতির হুঁশিয়ারিও দিয়ে রেখেছেন তাঁরা৷ ফলে সরকার কি পদক্ষেপ গ্রহণ করে সেদিকেই তাকিয়ে সব মহল৷

আরও পড়ুন: পরকীয়া ইস্যুতে সায়নীর কন্ডোম প্রসঙ্গ টেনে যা বললেন তথাগত