বকেয়া DA না মেটালে বিদ্যুত্‍ সংস্থার কর্তাদের বেতন বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের

0
17
BJP

কলকাতা : আদালতের নির্দেশ মত রাজ্য বিদ্যুত্‍ সংস্থার কর্মীদের ডিএ না দেওয়ায়  রাজ্যের দুই বিদ্যুৎ সংস্থার এমডি ও সিএমডি-র বেতন বন্ধের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট। আগামী, ১৫ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বেতন। এর মধ্যে যদি নির্দেশ মতো টাকা দেওয়া হয় তাহলে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হবে। শুক্রবার বিচারপতি রাজশেখর মান্থা এই চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করেন।

আরও পড়ুনঃ গুজরাট দাঙ্গার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ, অভিযোগ খারিজ সুপ্রিম কোর্টের

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, রাজ্য বিদ্যুত্‍ বন্টন সংস্থার এক কর্মী তাঁর বকেয়া ডিএ নিয়ে মামলা দায়ের করেছিলেন কলকাতা হাইকোর্টে। সেই মামলাতেই শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্ট এই চাঞ্চল্যকর রায় দিয়েছে। অভিযোগ, ২০১৯ এবং ২০২০ সালের বকেয়া ডিএ’র এক পঞ্চমাংশ কর্মীদের দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তা না দিয়ে শুধু ২০১৯ সালের বকেয়ার এক পঞ্চমাংশ দেওয়া হয়েছে। ২০২০ সালের বকেয়া ডিএ’র এক পঞ্চমাংশ দেওয়া হল না কেন, সেই প্রশ্ন আদালতের। বিচাপতির মন্তব্য, বাদাম খাওয়ার টাকা দিয়েছেন নাকি? যতদিন নির্দেশ না মানা হচ্ছে আধিকারিকদের বেতন বন্ধ থাকবে। ১৫ জুলাই পর্যন্ত বেতন বন্ধ থাকবে। নির্দেশ মত টাকা দেওয়া হলে নির্দেশ প্রত্যাহার করা হবে।’

রাজ্যের দুই বিদ্যুত্‍ সংস্থা পিডিসিএল এবং এসিডিএসএল-এর কর্মীরা আদালত অবমাননার অভিযোগ তুলেছিলেন তাদের সংস্থার বিরুদ্ধে। তাদের বক্তব্য ছিল, বিগত ৩ বছর ধরে তাদের ডিএ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। সংস্থা লাভজনক হওয়ায় রাজ্য সরকারের অধীনে হলেও তারা তাদের কর্মীদের নিজেদের আয় থেকেই বেতন দিত। কিন্তু ডিএ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কর্মীরা আদালতের দ্বারস্থ হয়। তাদের প্রশ্ন, সংস্থা লাভ করলেও তারা কেন তাদের প্রাপ্য ডিএ পাবে না। শুনানিতে আদালতের তরফে বলা হয়েছিল, ২৩ জুনের মধ্যে রাজ্যের দুই বিদ্যুত্‍ সংস্থার বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দিতে হবে। কিন্তু, সেই নির্দেশ মানা হয়নি। তাই এবার বেতন বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত সংস্থাকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে।