উদয়পুরের হত্যাকাণ্ডের তীব্র সমালোচনা করে বিশেষ বার্তা দিলেন মমতা

0
26

কলকাতা: নবীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন বিজেপির সাসপেন্ড হওয়া নেত্রী নুপুর শর্মা। যে ঘটনার বিরাট রেশ পড়েছিল দেশ সহ ভারতের বাইরেও। সেই পোস্টের সমর্থন করেছিলেন রাজস্থানের এক যুবক। তার পরিণতি যে এতটা নৃশংস হবে তা হয়ত স্বপ্নেও ভাবেনি। বর্তমানে রাজস্থানের উদয়পুরের খুনের ঘটনা নিয়ে তোলপাড় হচ্ছে দেশ। এই খুন নিয়েই একে একে সরব হচ্ছেন সকল রাজনীতিবিদ। সেই তালিকা থেকে বাদ গেলেন না বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। যুবকের মুণ্ডচ্ছেদের ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বুধাবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কানহাইয়া লালকে নরকীয় ভাবে খুনের ঘটনা প্রসঙ্গে দেশবাসীকে শান্ত থাকার বার্তা দিয়েছেন। টুইটে লিখেছেন, “হিংসা ও উগ্রপন্থা কোনও ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। উদয়পুরে যা কিছু ঘটেছে তার আমি তীব্র নিন্দা করছি। আইন যা করার করবে, আমি সকলকে শান্তি বজায় রাখার আবেদন করছি।” নতুন করে এই ঘটনা নিয়ে যাতে উত্তাপ না ছড়ায় সেই দিকে নজর রাখার কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

তবে কেবল মমতা নয় রাজস্থানের ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও প্রাক্তন কংগ্রেস প্রধান রাহুল গান্ধী। দুই নেতাই করেছেন টুইট। কেজরিওয়াল টুইটে লিখেছেন, “উদয়পুরের ঘটনা খুবই ভয়ঙ্কর ও মর্মান্তিক। সভ্য সমাজে এ ধরনের জঘন্য কাজের কোনো স্থান নেই। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই। এ অপরাধে জড়িতদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত।” রাগা লিখেছেন, “উদয়পুরে নৃশংস হত্যাকাণ্ডে আমি গভীরভাবে মর্মাহত। ধর্মের নামে বর্বরতা বরদাস্ত করা যায় না। যারা এই নিষ্ঠুরতার কারণে সন্ত্রাস ছড়িয়েছে তাদের অবিলম্বে শাস্তি দিতে হবে। আমাদের সবাইকে একসঙ্গে ঘৃণাকে হারাতে হবে। আমি সকলের কাছে অনুরোধ করছি, শান্তি ও ভ্রাতৃত্ব বজায় রাখুন।”