ভীড় এড়াতে ভার্চুয়াল গণেশপুজো কলকাতায়, সরাসরি সম্প্রচার ফেসবুকে

0
60

 

খাস খবর ডেস্ক: রাজ্যজুড়ে এখনও বলবৎ করোনাবিধি। আবার এদিকে সামনেই গণেশ চতুর্থী। কাজেই সব দিক বাঁচিয়ে পুজো করার সিদ্ধান্ত নিলেন বিভিন্ন আবাসন এবং ব্লক কমিটির উদ্যোক্তারা। জানালেন, গতবছরের মতোই এবছরও পুজো হবে ভার্চুয়ালি। ভিড় এড়াতে পুজোর লাইভ স্ট্রিমিং করা হবে ফেসবুকে।

মূলত মহারাষ্ট্রের উৎসব হলেও বিগত বেশ কিছু বছর ধরে গণেশ চতুর্থীতে মেতেছে কলকাতা। শহরের বিভিন্ন অংশে মহা ধূমধামে পূজিত হচ্ছেন মঙ্গলমূর্তি। বিভিন্ন আবাসনও পুজো করছে নিজেদের মতো করে। তবে গতবছর থেকেই পুজোর আনন্দে ভাগ বসিয়েছে করোনা। যার প্রকোপ এখনও রয়েছে রাজ্যজুড়ে। এই কারণেই এবার ভার্চুয়ালি গণেশ পুজো করতে চাইছেন বিভিন্ন আবাসনের উদ্যোক্তারা। একাধিক অভিনব উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন, ‘উদ্বাস্তুদের স্বাগতম’, লন্ডনজুড়ে ডিজিটাল পোস্টার লাগালেন মেয়র সাদিক খান

কী কী উদ্যোগ? পুজো মণ্ডপে ভিড় কোনওভাবেই হতে দিতে চান না উদ্যোক্তারা। তাই গণপতির দর্শনের বন্দোবস্ত থাকছে ভার্চুয়ালি। গতবছরের মতোই এবছরও ভক্তদের হাতে প্রসাদ তুলে দেওয়া হবে প্যাকেটের মাধ্যমে। বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের ক্ষেত্রে তাঁদের বাড়ি অবধি সেই প্যাকেট পৌঁছেও দিয়ে আসবেন উদ্যোক্তারা।

গতবছরের তুলনায় এবছর শহরজুড়ে বেড়েছে গণেশ পুজোর সংখ্যা। আগের তুলনায় আরও বেশি সংখ্যক আবাসন এই পুজোর আয়োজন করছে। আর এই কারণেই চিন্তা বাড়ছে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের৷ তাঁদের আশঙ্কা, কোভিডবিধি ভাঙলেই সংক্রমণ বাড়বে।আর সেই কারণেই এবছরও সমবেত হয়ে পুজো করা থেকে বিরত থাকতে চেয়েছেন শহরের পুজো উদ্যোক্তারা।

আরও পড়ুন, নির্যাতনের অভিযোগ করতে পিছপা হচ্ছেন না নারীরা, দেশে শীর্ষে সেই যোগীরাজ্য

৪০৫টি ফ্ল্যাটবিশিষ্ট নিউটাউনের গ্রীন উড সোনাটা আবাসনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক পারমিতা অধিকারী বলেন, ‘পুজোর আয়োজন তো থাকবেই। তবে সমস্ত করোনা প্রোটোকল মেনে।আমি সবাইকে অনুরোধ করব যাতে সেই নির্দেশ অনুযায়ী তাঁরা চলেন।’

অন্যদিকে, পোস্তা ট্রেডার্স ওয়েল ফেয়ার সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক মহেশ সারাফ বলেন , ‘ আমরা ভিড় এড়াতে চাইছি। তার কারণটা অবশ্য সবারই জানা। আর সেই কারণেই অনলাইন ঠাকুর দর্শনের ব্যবস্থা থাকছে৷ প্যাকেটের মাধ্যমে প্রসাদ পৌঁছে দেওয়া হবে। অনেকে আবার পুজো দেখতেও চান। তাঁদের জন্য ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার হবে মঙ্গল মূর্তির পুজো।’