বাবুলের কাজে বিরক্ত মমতা, বিধানসভা অধিবেশনের পরেই জল্পনা তুঙ্গে

0
63

কলকাতা: বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে পাকাপাকি স্থান তৈরি করে ফেলেছেন বাবুল সুপ্রিয়। মন্ত্রিত্বের সাড়ে তিন মাস পেরিয়েছে, এর মধ্যেই বাবুল সুপ্রিয়র(Babul Supriyo) ওপর ক্ষুব্দধ মমতা! এরকমই সুর শোনা গেল মমতার মুখে। বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন চলাকালীনই পর্যটন দফতরের মন্ত্রীকে কাজ নিয়ে নির্দেশ। আর সেই মর্মেই বাবুলেরও পাল্টা জবাব। এই কথোপকথন নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

আরও পড়ুন মোদীর ডাকে G-20 সম্মেলনে যোগ দিতে দিল্লি যাবেন মমতা

- Advertisement -

বিধানসভার বৃহস্পতিবারের অধিবেশন চলাকালীন প্রশ্নোত্তর পর্ব চলছে। সেই সময়েই গোলমালের সূত্রপাত। পর্যটন দফতরের নানান বিষয়ে প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছিলেন মমতা। এই সময়েই বাবুলের উদ্দেশ্যে মমতা বলেন, ‘বাবুল তুমি নতুন এসেছো। বাংলার ডিটেলস জেনে নাও’। তিনি পাল্টা উত্তর দিয়ে বলেন, ‘হিমালয় থেকে সমুদ্র আসছে। সবটা আমার নলেজে নেই। আমার সিলেবাসের বাইরে আছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাহায্য করে দিলে ভালো হয়।’

আরও পড়ুন অন্য সম্প্রদায়ের ছেলের সঙ্গে প্রেম, নিজের মেয়েকে খুন করল মা

বাবুলের(Babul Supriyo) এই জবাব শুনে হতবাক হন বিধানসভায় হাজির থাকা শাসকদলের মন্ত্রীরা। এমনকি তাঁর জবাবে মমতাও যে কিছুটা বিস্মিত হয়েছে তাও বুঝতে অসুবিধা হয়নি রাজনৈতিক মহলের। এরপরেই পরস্থিতিকে একটু স্বাভাবিক রাখতে মুখ খোলেন অন্যান্য প্রবীন নেতারা। তবে কানাঘুষো শোনা গিয়েছে, বাবুলের কাজে খুশি নন মমতা। এছাড়াও বিধানসভার অধিবশনে উপস্থিত থাকেন না বাবুল সুপ্রিয়। তা নিয়েও বিরক্ত মমতা। এদিনের এই বাবুল-মমতা কথোপকথনের পরেই রাজনৈতিক মহলে সমালোচনা তুঙ্গে উঠেছে।