চায়েই হবে কামাল

0
237
Health Benefits Of Masala Tea
মশলা চায়ের অনেক গুন রয়েছে। মশলা চা এনার্জি বুস্টার হিসেবে কাজ করে

চা পান করতে আমাদের প্রায় সবারই ভাললাগে। আর সেটা যদি হয় মশলা চা তাহলে তো কথাই নেই। মশলা চায়ের অনেক গুন রয়েছে। মশলা চা এনার্জি বুস্টার হিসেবে কাজ করে।

বিভিন্ন মশলার মিশ্রণে তৈরি বলে সব মশলার গুণ এই চায়ে পাওয়া যায়। যাকে অল ইন ওয়ান বলে আর কি। আর এইমুহুর্তে আমাদের শরীরে সবথেকে প্রয়োজন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। আর এই চা সেই ক্ষেত্রে সবার আগে। বাড়িতেই সহজে বানিয়ে নেওয়া যায় এই চা।

- Advertisement -

উপকরণ

আদা গুড়ো/ আদা- ১/২ চা চামচ অথবা সামান্য আদা কুচানো।
লবঙ্গ- ২টি।
দারচিনি- অল্প।
কালো মরিচ- ২টি।
কাঁচা হলুদ- ১/২।
চক্র ফুল- ১টি।
এলাচ-১টি।
মধু- ১/২ টেবিল চামচ।
তুলসী পাতা- ৪টি।
পুদিনা পাতা- ৪টি।
চা পাতা/ চায়ের গুড়ো- ১/২ টেবিল চামচ।
জল/দুধ- পরিমাণ মতন।

পদ্ধতি

তুলসী পাতা, মধু এবং পুদিনা পাতা বাদ দিয়ে বাকি সমস্ত কিছু একসঙ্গে গুড়ো করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রনটি অনেকদিন পর্যন্ত তুলে রাখা যায়। ফলে একবারেই কাজ হয়ে গেল।

এরপর পাত্রে গরম জল অথবা দুধ ফুটিয়ে তাতে চা পাতা এবং এই মিশ্রণটি দিয়ে ফুটিয়ে নিন। এরপর এতে তুলসী পাতা, পুদিনা পাতা দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। তারপর ছেঁকে নিয়ে মধু মিশিয়ে নিন।

ব্যস আপনার কাড়াক চা তৈরি।

প্রসঙ্গত, এই প্রত্যেকটি উপাদানের নিজস্ব গুণ রয়েছে। আদা ঠাণ্ডার হাত থেকে রক্ষা করে, লবঙ্গ কাশি এবং ব্যক্টেরিয়ার থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। দারচিনি বিভিন্ন ধরণের ইনফেকশান এবং অ্যালার্জি কে প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। এলাচ চায়ে স্বাদ আনবে।

অন্যদিকে, কালো মরিচ কাশি এবং ঠাণ্ডা ছাড়াও অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে। এতে প্রচুর ভিটামিন সি রয়েছে। হলুদ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। চক্র ফুল ঠাণ্ডার ক্ষেত্রে খুব কার্যকরী। মধু, তুলসী এবং পুদিনা কাশির ক্ষেত্রে খুবই উপকারী।

তাহলে এই একটা চায়ের মধ্যে যদি এত কিছু থাকে যা শরীরকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে তাহলে এই এক চায়েই হবে কামাল।