বিরল রোগে আক্রান্ত কিশোর, ছেলেকে বাঁচাতে মায়ের কাতর আবেদন

0
942

বেলঘরিয়া: একমাত্র সন্তান তিল তিল করে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে চলেছেন৷ এদিক ওপরওয়ালা কেড়ে নিয়েছে স্বামীকেও৷ চিকিৎসকেরা বলছেন, ছেলেকে বাঁচাতে হলে ১৭ লক্ষ টাকা দরকার৷ স্বভাবতই কি করবেন ভেবে উঠতে পারছেন না সদ্য স্বামীহার বিধবা বধূ৷ সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে কাঁদতে কাঁদতে সন্তানকে বাঁচানোর কাতর আকুতি মায়ের৷ ঘটনাস্থল, বেলঘরিয়ার দীননাথ চ্যাটার্জী লেন৷

জন্ম থেকেই বিরল রোগে আক্রান্ত বছর তেরোর কিশোর সপ্তাংশু ঘোষ। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায়, সপ্তানশু জন্ম থেকে স্পাইনাল মাসকুলার অ্যাট্রোফি নামে পেশীর এক বিরল রোগে আক্রান্ত। যার চিকিৎসার খরচ লক্ষ লক্ষ টাকা। এমতাবস্থায় সপ্তাংশুর চিকিৎসা এতদিন কোনরকম চালিয়ে যাচ্ছিল তার বাবা ও মা। কিন্তু গত বছর অক্টোবরে মারা যান সপ্তাংশুর বাবা। যার ফলে এখন সপ্তানশু-র চিকিৎসা এক প্রকার থমকে রয়েছে।

সপ্তাংশুর মা সোমা ঘোষ বলেন, ‘‘খুব শীঘ্রই সপ্তাংশুর একটি অস্ত্রোপচার দরকার৷ না হলে ওকে বাঁচানো সম্ভব হবে না। কেন না ওর পেশী দুর্বল হওয়ায় শিরদাঁড়া ক্রমশ: শরীরের ডানদিকে বেঁকে যাচ্ছে। যা সরাসরি গিয়ে আঘাত করছে তার ফুসফুসে। এর ফলে যে কোন দিন তার ফুসফুস বন্ধ হয়ে যেতে পারে।’’ আর এই আশঙ্কা করেই শহরের এক নামী হাসপাতালের চিকিৎসক সপ্তাংশুকে বাঁচাতে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন। যার খরচ প্রায় ১৭লক্ষ টাকা।

আর অস্ত্রোপচারের জন্য এহেন অর্থের কথা শুনে এখন প্রায় নির্বাক হয়ে পড়েছেন স্বামী হারানো সপ্তানশু-র মা। চিন্তায় খাওয়া-ঘুম উড়েছে মায়ের৷ বলছেন, ‘‘ছেলেটা ঠিক করে বসতেও পারে না৷ ওকে দেখে খুব কষ্ট হয়৷ এদিকে ওর বাবাও তো বেঁচে নেই৷ অত টাকা কোথায় পাব? কেউ কি এগিয়ে আসবেন সাহায্য করতে?’’

আরও পড়ুন: পুলিশের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ নিহত কিশোরের বাবার: Rahra Blast Case