হিটলারের সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত ‘Rising Sun’ পতাকা নিয়ে বিতর্ক কাতারে

0
34
FIFA World Cup 2022 Controversy Over The Rising Sun Flag In Qatar Fifa Take Action

স্পোর্টস ডেস্ক: কাতারে চলতি ফিফা বিশ্বকাপ নিয়ে বিতর্ক থামার নামই নিচ্ছে না। টুর্নামেন্টের হোস্ট কাতারকে নিয়ে একের পর এক বিতর্ক প্রকাশ্যে আসছে। কাতারে সমকামীদের উপর বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এছাড়াও ফুটবল সমর্থকদের অনেক পতাকা ব্যবহার করতেও বাধা দেওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে, ফুটবলের আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা ইংল্যান্ডের সমর্থকদের বিশ্বকাপ চলাকালীন মধ্যযুগীয় ক্রুসেডার পোশাক না পরতে বলেছে।

ক্রুসেডার পোশাক নিষিদ্ধ করার জন্য ফিফার যুক্তি ছিল যে আরব দেশগুলিতে, ক্রুসেডার পোশাক স্থানীয় জনগণকে উস্কে দিতে পারে। এই কারণে সমর্থকদের স্টেডিয়ামের ভেতরে এমন পোশাক না পরতে বলা হয়েছে। এখন ‘রাইজিং সান’ পতাকা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। গত ২৭ নভেম্বর জাপান এবং কোস্টারিকার মধ্যে গ্রুপ ই ম্যাচের সময় কয়েকজন জাপানি সমর্থক একটি ‘রাইজিং সান’ (Rising Sun) পতাকা নিয়ে মাঠে প্রবেশ করেছিল। এই ম্যাচে কোস্টারিকা জিতেছে ১-০ গোলে। জানা গিয়েছে, ফিফার কর্মকর্তারা এই বিতর্কিত পতাকা ঝুলিয়ে সমর্থকদের প্রদর্শন করতে বাধা দেন।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: FIFA WC 2022: নিজেদের দল হারার পর সেলিব্রেট করছেন ইরান ফ্যানেরা, Viral Video

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানি সামরিক বাহিনী রাইজিং সান পতাকা ব্যবহার করেছিল। তারপর হিটলারের সেনাবাহিনীতেও দেখা গিয়েছে এই পতাকা। এটি কোরিয়া সহ অনেক দেশে জাপানি সাম্রাজ্যের প্রতীক হিসাবে বিবেচিত হয়। এই পতাকা নিষিদ্ধ করার পর অনেক দেশেই প্রশংসিত হচ্ছে ফিফা। রাজনৈতিকভাবে ‘রাইজিং সান’ পতাকাটি একটি যুদ্ধের পতাকা, যার অর্থ জার্মানির হেকেনক্রুজের অনুরূপ। শুধুমাত্র এশিয়ান ফুটবল সমর্থকদের প্রতিই নয়, বিশ্বজুড়ে মানুষের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে ফিফা একটি খুব উপযুক্ত পদক্ষেপ নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ফিফা এখনও রাইজিং সান পতাকা সম্পর্কে কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি প্রকাশ করেনি।