দোকান-রেস্তোরাঁ থেকে নয় বাড়িতে বসেই স্বাদ নিন রাজস্থানী মিষ্টি ঘেভারের

0
48

রাইমা খাতুন: হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুযায়ী শ্রাবণ বা সাওয়ান মাসে হরিয়ালি তিজ একটি শুভ উপলক্ষ্য। বিবাহিত দম্পতিদের জন্য তেজ উৎসব খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এটি হিন্দু পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে পার্বতী শিবের সঙ্গে পুনরায় মিলিত হওয়ার সময়কে বলা হয়।

উত্তর ও পশ্চিম ভারতের লোকেরা তাঁদের পত্নীর দীর্ঘায়ু এবং পরিবারের মঙ্গল এবং সুখের জন্য প্রার্থনা করে।তেজ উৎসবের সময় খাওয়া প্রাথমিক মিষ্টিগুলির মধ্যে একটি হল ঘেভার। একটি মনোরম চিনি যুক্ত খাবার। যার কেন্দ্রে একটি গর্তের সঙ্গে বা ছাড়া একটি মৌচাকের মতন গঠন রয়েছে। আপনি যদি মিষ্টিপ্রেমী হন তাহলে ট্রাই করতে পারেন এটি।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: এবার মিষ্টিতে টুইস্ট আনুন রাঙা আলুর পায়েস রেঁধে

তাহলে দেখুন কিভাবে বানাবেন-

উপকরণ- ময়দা, ফ্রিজে রাখা ঠাণ্ডা দুধ, ঘি, বরফের টুকরো, চিনি, নর্মাল তাপমাত্রায় রাখা জল, বেসন, লেবুর রস, পেস্তা-কাজুবাদাম কুচি, কেশর, সাদা তেল বা ঘি, ফ্রিজের ঠান্ডা জল।

 

পদ্ধতি- প্রথমে একটি বাটিতে ঘি আর বরফের টুকরো নিয়ে ভালো করে ফেটাতে হবে। ৬-৭ মিনিট পরে এটা ক্রিমের মতো হয়ে যাবে। তখন বরফের টুকরোগুলো ফেলে দিতে হবে। এবার দুধ মেশান। আর ময়দা অল্প অল্প করে মিশিয়ে নিন।

এরপর ফ্রিজের ঠান্ডা জল পরিমাণ মত দিয়ে পাতলা জল এর মতো একটা ঘোল বানান। এর মধ্যে বেসন ও লেবুর রস দিন। আর একটি বাটিতে বরফ রেখে তার উপর এই বাটিটা বসিয়ে রাখতে হবে যাতে এটি ঠান্ডা থাকে।

আরও পড়ুন: মিস করছেন রেস্তোরাঁ স্পেশ্যাল চকোলেট লাভা কেক, দেখে নিন রেসিপি

এবার গ্যাসে পুরু তলা ওয়ালা একটা ছোট বাটি বা ডেকচি বসিয়ে তার ১/২ অংশের কম সাদা তেল বা ঘি দিতে হবে। কম আঁচে করতে হবে। এবার এটা ছোট বাটিতে ঘোল টি নিয়ে চামচে করে গরম তেলে দিতে হবে। কাজটা খুব সাবধানে আস্তে আস্তে করতে হবে, তা নাহলে তেল পাত্রের বাইরে উপচে পড়বে।

ফেনা কমে গেলে দেখা যাবে একটি জালি তৈরী হয়েছে। এবার চামচ এর পিছন দিক দিয়ে মাঝখানে একটু ফাঁকা করে নিতে হবে। পরের বার ওই ফুটোতেই ঘোলটা দিতে হবে। প্রয়োজন মতো ছোট বাটিটা আবার ভরে নিয়ে এই স্টেপ ৪-৫ বার রিপিট করতে হবে আর প্রত্যেক বার মাঝখানের থেকে জালিগুলি সরিয়ে ফুটোটা বজায় রাখতে হবে।

আরও পড়ুন: আবহাওয়ার পরিবর্তনে সর্দি কাশি থেকে বাঁচতে ভরসা থাকুক এই ম্যাজিক পানীয়ে

শেষে ২-৩ চামচ ঘোল পাত্রের সাইড বরাবর গোল করে দিয়ে দিতে হবে। এবার খানিকক্ষণ পর ঘেভার পাত্রের সাইড ছেড়ে দিলে একটা হাতা দিয়ে ঠেলে তেলে চুবিয়ে ব্রাউন করে ভেজে নিতে হবে। এবার সরু লম্বা কিছু ঘেভারের ফুটোর মধ্যে ভরে দিয়ে খুব সাবধানে তুলে নিতে হবে।

আর তেল ঝরিয়ে নিতে হবে। এবার চিনি আর জল একসঙ্গে দিয়ে ফুটিয়ে সিরাপ বানিয়ে এতে কিছু কেশর দিতে হবে। একটু ঠাণ্ডা করে ঘেভারের উপর চামচ দিয়ে ছড়িয়ে দিতে হবে। তারপর উপর থেকে পেস্তা আর কাজুবাদাম কুচি ছড়িয়ে দিলেই তৈরি ঘেভার।