রেস্টুরেন্টের খাবারের স্বাদ পেতে আজই রেঁধে ফেলুন ঐতিহ্যবাহী মটনের এই রেসিপি

0
64

খাস ডেস্ক: মটন খেতে আমরা সকলেই ভালোবাসি। মটনের পাতলা ঝোল গরম গরম ভাতের সঙ্গে দারুণ লাগে। এছাড়াও মটন দিয়ে আরও নানান রকমের খাবার বানানো যায়। সেই গুলির মধ্যেই একটি হল মটন নিহারী। এটি বাঙালিদের প্রিয় খাবার গুলির মধ্যে একটি।

গরম গরম রুটি বা পরোটার সঙ্গে অন্যস্বাদের রান্না করুন এই ঐতিহ্যবাহী মটন। তবে রেস্টুরেন্টে গেলে তো খাওয়াই যায়, কিন্তু সেটার স্বাদ সবসময় মনমতো হয় না। খুব সহজে বাড়িতেই এই মজাদার খাবারটি বানিয়ে নেওয়া যায়। তাহলে এখন থেকে এটি রেস্টুরেন্টে যেয়ে না খেয়ে, স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে বাড়িতেই বানিয়ে নিন এই রেসিপি। চলুন তাহলে জেনে নেই, এই মটন রান্নার পারফেক্ট রেসিপিটি!

আরও পড়ুন-স্পেশালদিনে লাঞ্চ প্ল্যানিং, গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন ‘চিকেন পাতুরি’

উপকরণ:
মটন (১ কেজি), পেঁয়াজ কুঁচি (২ কাপ), ধনে গুঁড়ো (২ টেবিল চামচ), আদা বাটা (৩ টেবিল চামচ), রসুন বাটা (২ টেবিল চামচ), গোলমরিচ গুঁড়ো (১/২ চা চামচ), কাশ্মীরি মরিচ গুঁড়ো (৩ চা চামচ), লাল মরিচ গুঁড়ো (১ চা চামচ), হলুদ গুঁড়ো (২ চা চামচ), এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, তেজপাতা (২টি করে), টক দই (২ টেবিল চামচ), লেবুর রস (২চা চামচ), টমেটো কুঁচিয়ে রাখা (১ কাপ), জয়ফল-জয়িত্রী গুঁড়ো (১চা চামচ), শুকনো প্যানে টেলে নেয়া জিরা গুঁড়ো(১ টেবিল চামচ), সরিষার তেল (১কাপ), নুন(স্বাদমতো), কাজু বাদাম পেস্ট (১চা চামচ)

পদ্ধতি:
১, প্রথমে কড়াইতে তেল দিন। তেল গরম হয়ে গেলে তাতে এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, তেজপাতা ফোঁড়ন ও পেঁয়াজ কুঁচি দিয়ে ভেজে নিন।
২, এবার ওই তেলে জল ঝরানো মাংস দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করুন। এরপরে একে একে ধনে গুঁড়ো, আদা বাটা, রসুন বাটা, কাশ্মীরি মরিচ গুঁড়ো, লাল মরিচ গুঁড়ো, কুঁচিয়ে রাখা টমেটো, লেবুর রস, নুন হলুদ গুঁড়ো দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে নিন।
৩, এরপর মশলা থেকে তেল বের হয়ে আসলে জলঝরানো টকদই ও বাদাম পেস্ট দিয়ে আবার একটু কষিয়ে নিন। এবার সেদ্ধ হওয়ার জন্য পরিমাণমতো গরম জল দিয়ে ঢেকে দিন ৩০ মিনিটের জন্য।
৪, এবার একটু নেড়ে নিয়ে জয়ফল-জয়িত্রী গুঁড়ো, টেলে রাখা জিরা গুঁড়ো, গোলমরিচ গুঁড়ো দিয়ে অল্প আঁচে জ্বাল দিতে থাকুন। কাশ্মীরি মরিচ গুঁড়ো আর টমেটোর জন্য গ্রেভিতে লাল রঙটা আসবে। ঝোল ঘন হয়ে এলে গ্যাস বন্ধ করে দিন। ব্যস রেডি আপনার কাশ্মীরি মটন কারি।