KK: বাবাকে ছাড়া প্রথম Father’s Day, স্মৃতি আঁকড়ে আবেগঘন পোস্ট মেয়ে Taamara-র

0
70

বিনোদন ডেস্ক: এখনও এক মাসও হয়নি, না ফেরার দেশে চলে গিয়েছেন সঙ্গীতশিল্পী কেকে (KK)। তাঁর আকস্মিক মৃত্যু এখনও মেনেই নিতে পারেনি অনুরাগীদের একাংশ। কেকে-র চলে যাওয়ার পর ভেঙে স্বাভাবিক ভাবেই ভেঙে পড়েছে পরিবারের সদস্যরা। এ বছরের ফাদারস ডে পালন হল। প্রথমবার বাবাকে ছাড়াই কেটে গেল দিনটি। বাবাদের জন্য উৎসর্গ করা বিশেষ দিনে পুরনো কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে আবেগঘন পোস্ট লিখলেন কেকে-তনয়া তামারা।

আরও পড়ুন: ফের উত্তাল Visva-Bharati, পরীক্ষা বয়কট করে পড়ুয়াদের আন্দোলন

- Advertisement -

কিছু পুরনো ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে তামারা লেখেন, ‘তুমি যদি আমার বাবা হয়ে এক সেকেন্ডের জন্যও ফিরে আসো তাহলে আমি তোমাকে হারানোর বেদনা ১০০ বার সহ্য করতে পারি। তুমি ছাড়া জীবন অন্ধকার বাবা। তুমি ছিলে পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো বাবা, যে বাড়ি এসে অপেক্ষা করত কখন আমাদের আলিঙ্গন করে আদর করবে। তুমি আমাদের নিজের ভালোবাসায় সুরক্ষিত রেখেছিলে। তোমার চলে যাওয়াটা কিছুতেই মেনে নেওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু তোমার ভালোবাসাই আমাদের শক্তি।, ‘আমি, নকুল এবং মা সবসময় তোমাকে গর্বিত করার চেষ্টা করে চলেছি। ঠিক তুমি যেভাবে আমাদের খেয়াল রাখতে আমরাও একইভাবে একে অপরের খেয়াল রাখব বাবা। তোমাকে প্রতি মুহূর্তে মনে পড়ে। তবে আমরা জানি। তুমি সবসময়ে আমাদের সঙ্গেই আছো।’ সব শেষে নিজের বাবাকে ফাদারস ডে-র শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কেকে তনয়া। তামারার লেখা প্রতি লাইনে যেন বাবার সঙ্গে কাটানো মুহূর্ত এবং বাবাকে হারানোর যন্ত্রণা ফুটে উঠছিল। এই পোস্টে নিজেদের ভালোবাসা ছড়িয়ে দিয়েছে অনুরাগীরাও।

আরও পড়ুন: টানা বর্ষণে দার্জিলিং-কালিম্পং জুড়ে ধস, বন্ধ যান চলাচল, আতঙ্কে পাহাড়বাসী

উল্লেখ্য, গত মে মাসে কলকাতার নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠান করতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়েন কেকে (KK)। সেখান থেকে হোটেলে নিয়ে যাওয়া হলে শারীরিক অসুস্থতা আরও বাড়তে থাকে। এরপর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। কেকে-র মৃত্যু ঘিরে নানা বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি, মুম্বইয়ের অনেক শিল্পীরাই কলকাতায় শো করতে আপত্তি জানান।