KK-র মৃত্যুতে জনরোষের শিকার তাঁর ‘ছায়াসঙ্গী’, অবশেষে মুখ খুললেন Taamara

0
50

বিনোদন ডেস্ক: গত মে মাসে প্রয়াত হন প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী কেকে। তাঁর মৃত্যু ঘিরে সৃষ্টি হয়েছে নানা বিতর্ক। জন্ম নিয়েছে বহু প্রশ্ন। ঘটনার এতগুলি দিন পেরিয়ে গেলেও গায়কের মৃত্যু মেনে নিতে পারেননি অনেকেই। এবার কেকে-র ম্যানেজার হিতেশ ভাটের দিকেও আঙুল তুলছে নেটিজেনরা। অবশেষে এ নিয়ে মুখ খুললেন কেকে-র মেয়ে তামারা। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট শেয়ার করে বিশেষ অনুরোধ করলেন তিনি।

আরও পড়ুন: Pathaan: নায়িকার থেকে নিজেকে আলাদা দেখাতে প্রথমবার শুটিং সেটে যা করেছেন Shah Rukh

- Advertisement -

কেকে তনয়া তামারা সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের বাবার সঙ্গে তাঁর টিমের একটি পুরনো ছবি শেয়ার করে লেখেন, “বাবা তাঁর টিমকে ভালোবাসতেন এবং বিশ্বাস করতেন। বাবা চলে যাওয়ার পর আমরা আপনাদের থেকে যে ভালোবাসা পাচ্ছি, এই সময়ে দাঁড়িয়ে তাঁদেরও এটাই প্রয়োজন। তিনি আরও লেখেন, ‘বাবার শেষ সময় আমি, মা কিংবা নকুল কেউই তাঁর পাশে ছিলাম না, শেষ বিদায় জানাতে পারিনি। কিন্তু আমরা খুশি যে সেইসময় হিতেশ আঙ্কেল গোটা বিষয়টি সামলে নিয়েছিলেন। যখন থেকে হিতেশ আঙ্কেল বাবার সঙ্গে থাকতে শুরু করেন বাবা অনেকটাই চাপমুক্ত হয়ে গিয়েছিলেন।’ শেষে কেকে-র টিমকে আক্রমণ করে কোনও রকম বাজে মন্তব্য না করার অনুরোধ জানিয়েছেন তামারা।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ মে এক কলেজের ফেস্টে কলকাতার নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠান করতে আসেন কেকে। গানের মাঝেই অসুস্থ বোধ করতে শুরু করেন। কোনওরকমে অনুষ্ঠান শেষ করে হোটেলে ফিরে যান তিনি। কিন্তু সেখানে অস্বস্তি আরও বাড়লে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। তবে চিকিৎসকেরা তাঁকে ‘Brought Dead’ ঘোষণা করেন। এরপরই নজরুল মঞ্চ কর্তৃপক্ষের দিকে অভিযোগ উঠতে থাকে। আসন সংখ্যার তুলনায় দর্শকসংখ্যা বেশি হওয়া নিয়েও প্রশ্ন শুরু হয়। রাজ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়। কেকে-র মৃত্যুর জল গড়ায় আদালত পর্যন্ত। কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হয় তিনটি জনস্বার্থ মামলা। অন্যদিকে, জানা গিয়েছিল, নজরুল মঞ্চ থেকে গায়কের হোটেলে যাওয়ার রাস্তায় নাম করা হাসপাতাল ছিল। সেইসময় যদি তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখা যেত তাহলে হয়তো প্রাণে বাঁচানো যেত। যে কারণে জনরোষের মুখে পড়েন কেকে-র ম্যানেজার হিতেশ ভাট।