রোনাল্ডোর জন্মভূমিতে এ বছর মা আসছেন

0
57
Durga Puja

খাস ডেস্ক: ২ বছর পর করোনার জের কাটিয়ে এবার মহাসমারোহে পালিত হচ্ছে দুর্গাপুজো। দেশের মাটিতে তো ইতিমধ্যেই বেজে গিয়েছে পুজোর (puja) বাদ্যি। মানুষের ঢল নেমেছে তিলোত্তমার পথে। পাশাপাশি, বিদেশের মাটিতেও কিছু কিছু জায়গায় মহালয়ার পরের দিন থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে দুর্গোৎসব পালন। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা বাঙালি এবছর গা ভাসিয়েছেন আনন্দ জোয়ারে। এবছর ইউনেস্কো থেকে পাওয়া স্বীকৃতি বাড়িয়ে দিয়েছে পুজোর আনন্দ।

এই প্রথমবার, রোনাল্ডোর জন্মভূমিতেও পালিত হতে চলেছে দুর্গোৎসব। পর্তুগালের ভারতীয় প্রবাসীদের সংগঠন “ভূমি-ইন্ডিয়ান কালচারাল অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশান” এবছর প্রথমবার দুর্গাপুজর আয়োজন করেছে। আগামী ২ থেকে ৪ অক্টোবর মার্কাদো দে কালচারাস দে আরিওস লিসবনে মহাসমারোহে দেবী আরাধনায় মাততে চলেছেন প্রবাসীরা। ভারতীয় সংগঠনের এই পুজর পাশে এসে দাঁড়িয়েছে পর্তুগালের ভারতীয় দূতাবাস এবং লিসবন অ্যান্ড আরিওস প্যারিস কাউন্সিল।

- Advertisement -

আরও পড়ুন- একের পর এক তল্লাশি, একযোগে ৯ জায়গায় হানা পুলিশের

কুমারটুলি থেকে যাচ্ছে প্রতিমা। আগামী ২ অক্টোবর সকালে ভারতীয় দূত মণিশ চৌহান মহাশয়ের হাতে হবে পুজোর (Puja) উদ্বোধন। পুজোর আনন্দকে দ্বিগুন বাড়াতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং খাওয়াদাওয়া, গয়নাগাটি, জামাকাপড়ের স্টলের বিপুল আয়োজন করেছে সংশ্লিষ্ট সংস্থা। পর্তুগালে বসবাসকারী সকল ভারতীয় প্রবাসির সঙ্গে এই আনন্দ ভাগ করে নিতে উৎসাহী তাঁরা। ভূমির সভাপতি ডঃ মানস সূত্রধর বলেন, “এই পুজোর মাধ্যমে মানুষের মধ্যে সৌহার্দ তৈরি হবে”। বলা বাহুল্য, আমেরিকা, কানাডা, লন্ডন সহ পাশ্চাত্যের একাধিক দেশে দুর্গোৎসব পালন করে থাকেন প্রবাসী ভারতীয়রা। চারদিন ধরে সাত-সমুদ্র পাড়ে এই উৎসব দেখে মনে হয় যেন এক টুকরো ভারতবর্ষ।