কারা পিছনের দরজা দিয়ে চাকরি পেয়েছে, তালিকা তৈরির নির্দেশ বিচারপতির

0
58

কলকাতা: সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সংবাদমাধ্যমে তিনি দাবি করেছিলেন, রাজ্যের শিক্ষাঙ্গনে বেআইনিভাবে যারা চাকরি পেয়েছেন (SSCrecruitment) তাদের সকলের চাকরি যাবে৷ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের ওই মন্তব্য যে স্রেফ ‘কথার কথা’ ছিল না, বুধের সকালে নিজেই সেটা স্পষ্ট করে দিলেন৷

এদিন বেআইনি নিয়োগ সংক্রান্ত একটি মামলার শুনানিতে নবম এবং দশম শ্রেণির শিক্ষক হিসেবে কত জনকে বেআইনি ভাবে নিয়োগ করা হয়েছে, তার তালিকা এসএসসি এবং সিবিআইয়ের কাছে চেয়ে পাঠিয়েছেন তিনি৷ এক সপ্তাহের মধ্যে তাঁদের তালিকা আদালতে জমা দেওয়ার জন্য দুই সংস্থাকে এদিন নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি৷ পুজোর মুখে তড়িঘড়ি কেন এমন নির্দেশ তার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন বিচারপতি৷ এজলাসে বিচারপতিকে বলতে শোনা যায়, ‘‘এপ্রিল মাস থেকে মামলা চলছে, প্রকৃত যোগ্য প্রার্থীরা এখনও চাকরি পাননি। তাঁদের দ্রুত চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে তো।’’

- Advertisement -

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই এসএসসি এবং সিবিআইকে এই সংক্রান্ত রিপোর্ট আদালতে পেশ করারও নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। যার জেরে পুজোর আগেই নিয়োগ সংক্রান্ত মামলায় বিচারপতি কড়া পদক্ষেপ নিতে পারেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল৷ বস্তুত, এসএসসি নিয়োগ সংক্রান্ত (SSCrecruitment)  মামলায় বিস্তর অসঙ্গতির অভিযোগে জেলে যেতে হয়েছে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, এসএসসির প্রাক্তন চেয়ারম্যান শান্তিপ্রসাদ সিনহা সহ একাধিক প্রাক্তন পদস্থ আধিকারিককে৷ বিচারপতি আগেই স্পষ্ট করেছিলেন, অযোগ্যদের সরিয়ে যোগ্যদের চাকরি পাইয়ে দিতে তিনি বদ্ধ পরিকর৷ সেকারণেই এসএসসি এবং সিবিআইয়ের কাছ থেকে পৃথক পৃথক তালিকা চেয়ে পাঠিয়েছেন তিনি৷ ফলে আসল, নকল বাছাই করে পুজোর আগেই বিচারপতি বড় পদক্ষেপ নিতে পারেন বলেই মনে করা হচ্ছে৷ মামলাটির পরবর্তী শুনানি হবে আগামী বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর৷ আপাতত সেদিকেই নজর থাকবে সব মহলের৷

আরও পড়ুন: শিশুরা সুন্দর মাতৃক্রোড়ে… বক্সার বিরল দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি

downloads: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor