ফোন করে সন্তানকে অপহরণের হুমকি, আতঙ্কে দত্তপুকুর

0
6

দত্তপুকুর: একই নম্বর থেকে পৃথক পৃথক জায়গায় ফোন করে মা-বাবাকে বলা হচ্ছে নির্দিষ্ট টাকা না দিলে তাদের সন্তানদের মেরে ফেলা হবে! শুক্রবার দত্তপুকুরের দুটি পরিবারের কাছে অচেনা নম্বর থেকে গিয়েছে এই হুমকি (kidnap) ফোন। বস্তুত, যার জেরে সিরিয়াল অপহরণ আতঙ্কে আতঙ্কিত দত্তপুকুরের একাধিক পরিবার।

জানা গিয়েছে, একই নম্বর থেকে পৃথক পৃথক জায়গায় ফোন করে মা-বাবাকে বলা হয় নির্দিষ্ট টাকা না দিলে তাদের সন্তানদের মেরে ফেলা হবে। এমনকি দুটি পরিবারেরই সম্পূর্ণ তথ্য তাদের কাছে পুঙ্খানুপুঙ্খা ভাবে রয়েছে। কে কোন স্কুলে পড়ে, কার কি নাম, কত বয়স, কোথায় থাকে, কোথা দিয়ে যাতায়াত করে সবই নিমেষে ফোনে বলে দিচ্ছে অপহরণকারীরা! আতঙ্কে তড়িঘড়ি অভিভাবকরা ছুটে যান দত্তপুকুর থানায়।

তৎপরতার সঙ্গে দত্তপুকুর থানার পুলিশ অনুসন্ধানে নামে এবং ওই ভুতুড়ে ফোন নম্বরকে শনাক্ত করে। অভিভাবকরা রীতিমতো আতঙ্ক রয়েছেন আগামীকাল তারা স্কুলে তাদের ছেলেমেয়েদের পাঠাবেন কি না তা নিয়ে। কে বা কারা এই চক্রের সঙ্গে যুক্ত তাও এখন পরিষ্কার নয়৷ গোটা ঘটনার তদন্ত করে দেখছে দত্তপুকুর থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, যাদেরকে ফোন করা হয়েছে সেই অভিভাবকদের ছেলেমেয়েরা বারাসাতের জগন্নাথপুরে একটি বেসরকারি স্কুলের পাঠরত। অপর পরিবারের ছেলেমেয়ের দত্তপুকুরের কাশেমপুর বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী। পুলিশ অভিযোগ পাওয়া মাত্রই যে ছাত্রছাত্রীদের হুমকি দেওয়া হয়েছে অপহরণের (kidnap) তাদের নিজ নিজ স্কুল থেকে পুলিশি প্রহরায় বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়। এখন দেখার ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশি তদন্ত কতটা এগোয়।

আরও পড়ুন: জেলে পার্থ যেন বাড়তি সুবিধা না পান, হুঁশিয়ারি কুণালের

downloads: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor