টিকা নেওয়ার পর সদ্যোজাতের মৃত্যু, আশাকর্মীর সঙ্গে যা করল পরিবার

0
56

জলপাইগুড়ি: সদ্যোজাত এক শিশুকে ভুল টিকা দিয়েছিলেন আশাকর্মী। এরপরই অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই শিশু। এই অভিযোগ তুলেই পরিবারের লোকেরা ব্যাপক মারধর করে স্বাস্থ্যকর্মীকে। এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে নয় জনকে। ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ি ব্লকের ঝাড়আলতা ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্য খট্টিমারি এলাকায়।

আরও পড়ুন: প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ পরিচয়ে চাকরির প্রতিশ্রুতি, মোটা টাকা নিয়ে পলাতক তৃণমূল নেতা

জানা গিয়েছে, এলাকার বাসিন্দা প্রসেনজিৎ রায় ও শ্রাবণী রায় তাদের মাত্র তিন মাসের পুত্র সন্তান ধ্রুবকে ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকা দেওয়ার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে এক আশাকর্মী শিশুটিকে ভ্যাকসিন দেয়। বাড়ি ফেরার পর সন্ধ্যেবেলা জ্বর আসে ধ্রুবর। যেহেতু টিকা দেওয়া হলে স্বাভাবিকভাবেই জ্বর আসে তাই বিষয়টিকে গুরুত্ব দেননি বাবা-মা। রাত বাড়তেই ধ্রুবর অবস্থার অবনতি হয়। এরপর ভোর চারটে নাগাদ শিশুটির নাক দিয়ে রক্ত সহ ফেনা জাতীয় কিছু বের হতে দেখা যায়। শীঘ্রই সদ্যজাতকে স্থানীয় এক গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

আরও পড়ুন: সরকারি হাসপাতালে আয়াদের দাদাগিরি: মেয়ে হলে ৩০০, ছেলে হলে ৫০০ টাকা চাঁদা

এরপরই ওই স্বাস্থ্যকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে সোচ্চার হয় মৃত শিশুর বাবা-মা। তাদের অভিযোগ, আড়াই মাসের বাচ্চাদের টিকা তিন মাসের ধ্রুবকে দেওয়া হয়েছিল। সেইজন্যই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। তবে এখানেই শেষ নয়, অভিযুক্ত স্বাস্থ্যকর্মীকে চুলের মুঠি ধরে বেধড়ক মারধর করা হয়। অসুস্থ হয়ে পড়েন নির্যাতিতা। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নয়জনকে আটক করে।