নীলছবিতে অভিনয় করার সন্দেহে সন্তানের সামনে স্ত্রীকে খুন পর্নোগ্রাফিতে আসক্ত অটোচালকের

0
27

ব্যাঙ্গালুরু : পেশায় অটোচালক এক ব্যক্তি যিনি পর্নোগ্রাফিতে আসক্ত। কয়েকদিন আগে তিনি পর্নোগ্রাফি দেখেছিলেন যার পর থেকেই তাঁর মনে সন্দেহ তৈরি হয়েছি যে সেই নীলছবিতে অভিনয় করেছেন তাঁর স্ত্রী। এই সন্দেহের কারণেই তিনি ১৭ এপ্রিল রবিবার তাঁর স্ত্রীকে সন্তানের সামনে হত্যা করেছেন বলেই অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত ব্যক্তিকে জাহির পাশা (৪০) নামে পুলিশ চিহ্নিত করেছে। জানা গিয়েছে তিনি তিনি প্রায় দুই মাস আগে একটি পর্ণ মুভি দেখেছিলেন এবং সন্দেহ করতে শুরু করেছিলেন যে তার স্ত্রী মুবিনা (৩৫) এতে ছিলেন। এর পর থেকেই স্ত্রীর বিশ্বস্ততা সম্পর্কে একাধিকভাবে হয়রানি করতে থাকেন বলেই অভিযোগ করা হয়েছে। এই সন্দেহের কারণে তাঁদের মধ্যে অশান্তি চরম পর্যায়ে পৌঁছে গেলে রবিবার, জাহির পাশা তাদের সন্তানদের সামনে স্ত্রীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে খুন করে। তদন্তকারী এক পুলিশ কর্মকর্তার মতে, মুনিবার বাবা ঘৌস পাশা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করতে গেলেও তাঁকে বাধা দেওয়া হয়েছিল বলে দাবি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন- চাঞ্চল্যকর খবর, ৬ লাখ ইউরো আত্মসাতের অভিযোগ রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থীর বিরুদ্ধে

দু’মাস আগে পাশা একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে মুনিবাকে লাঞ্ছিত ও মারধর করেন বলে অভিযোগ। পুলিশ জানতে পেরেছে সেখানে উপস্থিত পরিবারের অন্য সদস্যরা জানতে পেরেছিলেন যে কেন পাশা তাকে হয়রানি করছিলেন। পাশা এবং মুনিবা বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা বলেই উল্লেখ করা হয়েছে। তাঁরা ১৫ বছর একসঙ্গে সংসার করছিলেন। দু’মাস আগের ঘটনার পর প্রায় ২০ দিন আগে পাশা তার স্ত্রীকে এতটা খারাপভাবে মারধর করেছিল যে তাকে হাসপাতালে ভরতি হতে হয়েছিল। তারপর একেবারেই সন্দেহের বসে স্ত্রীকে খুন করল স্বামী। ঘটনাটি নিয়ে পুলিশ তদন্ত করছে বলেই জানানো হয়েছে।