শুধু নির্বাচক বদলে লাভ কি

0
24

বিশ্বদীপ ব্যানার্জি: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটে হারের জেরে বিশাল পদক্ষেপ ভারতীয় বোর্ডের। অপসারিত করা হল, মুখ্য নির্বাচক চেতন শর্মাসহ জাতীয় দলের সকল নির্বাচককে। মূলতঃ তিনটি কারণে চেতন শর্মা নেতৃত্বাধীন নির্বাচকমণ্ডলীকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: India vs Newzealand :ওয়েলিংটনে কি লজ্জার হাত থেকে বাঁচল টিম ইন্ডিয়া

- Advertisement -

(১) এশিয়া কাপে সুপার ফোর পর্ব থেকে বিদায় নেওয়া।‌ (২) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে লজ্জাজনক পরাজয়। (৩) চোট পাওয়া যশপ্রীত বুমরাহ্-কে তাড়াহুড়ো করে দলে ফেরানোর কার্যত ছেলেখেলা। কিন্তু শুধু নির্বাচক বদলে লাভ আছে কিছু? গলদ যে গোড়াতেই, আর গোড়াটা অনেক গভীরে।

ভারতীয় ক্রিকেটে লবিবাজি চিরকাল-ই ছিল। আইপিএল আসার পর থেকে তা বেশি করে চোখে লাগছে, এই যা। যতই নির্বাচক পাল্টানো হোক— কী হবে? এরপর যাঁরা যাঁরা নির্বাচক হয়ে আসবেন, তাঁরাও যে একই পথের পথিক হবেন না, সে নিশ্চয়তা কী? বোর্ডে আরও যে সমস্ত কেষ্টবিষ্টুরা রয়েছেন, তাঁরা এতকিছুর পরেও নিজেদের প্রিয় ক্রিকেটারদের খেলিয়ে যাবেন। সুযোগ পাবেন না যোগ্যতম ব্যক্তি।

তাছাড়া ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম দস্তুর-ই হল আলিস্যি। এখন যা পরিস্থিতি তাতে ভাল কিছুর আশা করতে হলে সবার প্রথমে প্রয়োজন একটি বিপ্লব। বিসিসিআইয়ের কিন্তু বয়েই গিয়েছে বিপ্লব করতে। যেমনটা চলছে চলুক না। যদি কাপ আসার থাকে, তাহলে কোনও না কোনও দিন এভাবেই আসবে। এই হচ্ছে, বোর্ডের অলস মানসিকতা। তাছাড়া, আসল জিনিসটার তো কোনও অভাব হচ্ছে না। অর্থ। আইপিএল তো আছেই। তাছাড়া ভারতীয় সমর্থকরাও যে বিশ্বকাপ-ব্যর্থতা ভুলে দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলিতে মাঠে ভিড় জমাবেন, সে বিশ্বাস-ও রয়েছে বোর্ড কর্তাদের।

খাস খবর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক:
https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

গলদটা আসলে গোড়তে-ই। আর তা শুধরে নেওয়া কার্যত অসম্ভবের নামান্তর। কারণ, ভারতীয় ক্রিকেট তা শুধরাবে না। শুধরাতে পারবে না। ফলতঃ নির্বাচকমণ্ডলীকে লোকদেখানো অপসারণ করতে হচ্ছে। কিন্তু কী লাভ তাতে? যা ঘটে চলেছে তা এরপরেও ঘটতে থাকবে। আর তা নিশ্চিতভাবেই।