ধোনির অধিনায়কত্বে টিম ইন্ডিয়ার প্রথম ম্যাচের ১৩ বছর

0
147

কলকাতা: বাইশ গজের যুদ্ধে জনপ্রিয় হয়েছে কুড়ি ওভারের ম্যাচ। সেই ম্যাচ দিয়ে আজকের দিনে অর্থাৎ ১৪ সেপ্টেম্বর যাত্রা শুরু করেছিলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ফুটবল প্রিয় ধোনির নেতৃত্বাধীন সেই ম্যাচের স্কোরবোর্ড ছিল ফুটবলের মতোই। সেই ঐতিহাসিক ম্যাচের আজ ১৩ বছর পূর্ণ হল।

‘বেনসন এন্ড হেজেস’ টুর্নামেন্ট বন্ধ হয়ে যায় প্রায় আঠেরো বছর আগে। তারপরেই ‘ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড’ নতুন একটি টুর্নামেন্ট শুরু করবে বলে ঠিক করে। বিপণন ব্যবস্থা বাড়াতে তাদের চাহিদা ছিল টুর্নামেন্টটি ছোটো এবং উত্তেজক হবে। তাদের বিপণন ব্যবস্থাপক স্টুয়ার্ট রবার্টসন কুড়ি ওভারের টুর্নামেন্টের প্রস্তাব দিলে তা কাউন্টি চেয়ারম্যানরা মেনে নেন। শুরু হয় জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট।

- Advertisement -

২০০২ সালে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট শুরু হয়। তার প্রায় পাঁচ বছর পর যাত্রা শুরু হয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। বারোটি দল অংশ নেয় বিশ্বকাপে। দশটি টেস্ট খেলিয়ে দল এবং ২০০৭ আইসিসি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট লিগ ডিভিশন ওয়ানের দুই ফাইনালিস্ট কেনিয়া ও স্কটল্যান্ডকে নিয়ে শুরু হয় টুর্নামেন্ট। সাউথ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত এই বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত। ফাইনালে এমএস ধোনির নেতৃত্বে হারায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে।

বিশ্বকাপের গ্রুপ ডি’তে ছিল ইন্ডিয়া এবং পাকিস্তান। ১৩ বছর আগে আজকের দিনেই গ্রুপ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। পাকিস্তান তার আগের ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে হারানোয় এবং ইন্ডিয়া-স্কটল্যান্ড ম্যাচ বাতিল হয়ে যাওয়ায় শেষ আটে জায়গা পাকা করেই এই ম্যাচে খেলতে নেমেছিল পাকিস্তান। অন্য দিকে শেষ আটে যাওয়ার জন্য জিততেই হত টিম ইন্ডিয়াকে।

এই অবস্থায় খেলতে নেমে নির্ধারিত কুড়ি ওভারে দুই দলই ১৪১ রান করে। টাই হওয়ায় ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেইবছর নিয়ম ছিল বল আউটের। অর্থাৎ দুই দলই উইকেটে পাঁচটি বল করবে। যেই দল বেশিবার উইকেটে বল লাগাবে তারাই জিতবে। দলের পাঁচ’জন প্লেয়ার পাঁচ’টি বল করতে পারতো। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ যার নিষ্পত্তি বল-আউটের মাধ্যমে হয়।

ভারতের পক্ষ থেকে হরভজন সিং, বীরেন্দ্র শেহবাগ এবং রবিন উথাপ্পা বল করে। তিনজনই উইকেটে বল লাগায়। অন্যদিকে পাকিস্তানের প্রথম তিন বোলার শাহিদ আফ্রিদি, উমর গুল এবং ইয়াসির আরাফত উইকেটে বল লাগাতে না পারায় ভারত ৩-০ স্কোরে ম্যাচটি জেতে।

সেই ম্যাচে সংজ্ঞ বদলে গিয়েছিল ক্রিকেটের স্কোরবোর্ডের। ম্যাচ শেষে স্কোরবোর্ড দেখে মনে হচ্ছিল ফুটবল ম্যাচ জিতেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। ক্যাপ্টেন হিসাবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছিল ফুটবলভক্ত ধোনির। যদিও, স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ বাতিল হয়ে যায়। সেই কারণে পাকিস্তানের সঙ্গে খেলা ম্যাচটিই তাঁর অধিনায়কত্বে প্রথম ম্যাচ।