Disaster: প্রাণের ভয় নেই, প্রবল দুর্যোগের মাঝেও চলছে নৌকো পারাপার

0
83

জগদ্দল: ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ এর আগমনে তটস্থ প্রশাসন থেকে সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকার বাসিন্দারা৷ পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘা কিংবা দক্ষিণ ২৪ পরগণার সুন্দরবন লাগোয়া একাধিক এলাকায় ইতিমধ্যে ঘাট উপচে সমুদ্রের জল ঢুকে পড়েছে এলাকায়৷ ঝড়-জলের দাপটের সাক্ষী থাকতে গিয়ে ঘাটে নোঙর করে রাখা পণ্যবাহী ট্রলারও উলটে গিয়ে খাবি খাচ্ছে জলে৷ অথচ জগদ্দলে যেন উলোটপুরাণ৷

প্রশাসনিকভাবে ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করার পরও রবিবার দিব্যি নৌকোয় করে যাত্রীদের পারাপার করতে দেখা গেল একাংশ মাঝিকে৷ স্বাভাবিকভাবে, মাঝি ও যাত্রীদের একাংশের ভূমিকা নিয়ে যেমন প্রশ্ন উঠেছে তেমনই প্রশ্নের মুখে প্রশাসনিক নজরদারিও৷ ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয়েছে ওয়াকিবহাল মহল৷

ওই মহলের মতে, ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ এর প্রভাবে এরাজ্যে প্রবল বৃষ্টি সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া চলছে দিনভর। সে জন্যই সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার কারণে অন্যান্য ফেরিঘাটের পাশাপাশি জগদ্দল ফেরিঘাটেও ফেরি চলাচল বন্ধ করা হয়েছে শনিবার থেকেই। কিন্তু মানুষ নিজে যদি সচেতন না হয় তাহলে প্রশাসনই বা কি করবে?

প্রসঙ্গত, প্রশাসনের নির্দেশ উড়িয়ে রবিবার প্রবল প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যেও রীতিমতো প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে নৌকা পারাপারের ছবি সামনে এসেছে৷ জগদ্দল থেকে চন্দননগর, প্রাণের মায়া উড়িয়ে চলছে গঙ্গা পারাপার৷ স্থানীয় মাঝিরা নিজেদের নৌকা নিয়ে এই গঙ্গা পারাপারের কাজ করছে। ফলে প্রবল প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে যেকোনও সময় বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েই যাচ্ছে। যদিও এবিষয়ে প্রশ্ন করেও কোনও সদুত্তর মেলেনি বেপরোয়া মাঝি কিংবা পারাপারকারী মানুষের কাছ থেকে৷

আরও পড়ুন: Police torture: লকআপে অভিযুক্তকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ, কাঠগড়ায় পুলিশ

আরও পড়ুন: jawad: কোটালের দাপটে উত্তাল সমুদ্র, উলটে গেল পণ্যবাহী ট্রলার