‘‘পিছন ফিরে দেখুন, ছায়াটাও সঙ্গে নেই’’, দিলীপ, শুভেন্দুকে উদ্দেশ্য করে কেন একথা বললেন কুণাল

0
135

কাঁথি: নিজে থেকে যাননি৷ দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কৈফিয়তের জবাব দিতে দিল্লি ছুটতে হয়েছে শুভেন্দু অধিকারীকে৷ বুধবার এমনই বিস্ফোরক দাবি করেছেন তৃণমূলের রাজ্য মুখপাত্র কুণাল ঘোষ৷ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, ‘‘নিজের গ্রেফতারি এড়াতেই ঘন, ঘন দিল্লি ছুটছেন শুভেন্দু৷’’

আরও পড়ুন: ‘অন্য ভোটে’ ল্যাম্প পোস্টই ভরসা : পাড়ায় পাড়ায় শোনানো হবে দিদির কথা

বুধবার কাঁথিতে একটি গণেশ পুজোর উদ্বোধনে এসে সেচ দফতরের বাংলোতে এক সাংবাদিক সন্মেলনে বিজেপির দলে ভাঙন প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। কুণালের দাবি, ‘‘শুভেন্দু নিজে থেকে দিল্লিতে যায়নি৷ ওকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। জানতে চাওয়া হয়েছে, কেন বিজেপির বিধায়করা দল ছেড়ে চলে যাচ্ছে৷ পরিষদীয় দলনেতা হয়েও বিধায়কদের ধরে রাখতে পারছেন না কেন৷ সকলের সঙ্গে ব্যবহার ঠিকঠাক করা হচ্ছে কি না৷ এরপরও যদি কোনও বিধায়ক দল থেকে চলে যায়, তাহলে পরিষদীয় নেতার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে শুভেন্দুকে৷’’

আরও পড়ুন:  বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় নয়া মোড়: এনআইএ তদন্তের দাবি তুললেন অর্জুন

কিসের ভিত্তিতে তিনি একথা বলছেন তাঁর ব্যাখ্যাও দিয়েছেন শুভেন্দুর প্রাক্তন সতীর্থ৷ কাঁথির সেচ বাংলোতে সাংবাদিক বেঠকে কুণালের দাবি, ‘‘বিজেপির পার্টি অফিসে যারা প্রেস কনফারেন্সে বসে আছে, তাঁদের অনেককে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিসে দেখেছি৷ বিজেপির ভেতরের লোকেরাই খবর দিচ্ছে, ওখানে কি হচ্ছে।’’ এরপরই বোমা ফাটিয়েছেন, ‘‘শুভেন্দু, দিলীপ ঘোষরা সামনের দিকে তাকিয়ে হাঁটছেন৷ একবার পেছন ফিরে তাকান। দেখবেন ছায়াটাও ওদের সঙ্গে নেই!’’

একই সঙ্গে শুভেন্দুকে ‘ভিতু’, ‘পলাতক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব’ বিশেষণে অভিহিত করে কুণালের দাবি, ‘‘সারদা, নারদা তদন্তে সিবিআইয়ের এফআইআরে শুভেন্দুর নাম রয়েছে। ভিডিওতে টাকা নিচ্ছে, তা সকলে দেখেছে। লোকসভার স্পিকার যাতে গ্রেফতারের অনুমতি না দেন, তাই ঘন ঘন দিল্লি ছুটছেন৷’’

মঙ্গলবারই রাজধানীতে দাঁড়িয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন, বিজেপির আরও ২৫ জন বিধায়ক দল বদলাতে চাইছেন৷ সেই প্রসঙ্গ মনে করিয়ে কুণাল বলেন, ‘‘দেখতে থাকুন৷ শেষ পর্যন্ত কি হয়!’’