Corruption in Bengal: বাংলায় দুর্নীতির মুক্তি কোন পথে, জানালেন মমতার প্রাক্তন সতীর্থ

0
64

কলকাতা: অতীতে তৃণমূলের সংসারেও ছিলেন তিনি৷ দাবি করেছেন, ‘‘বাংলায় একটায় প্রবলেম আছে। এখানে সব জায়গায় দুর্নীতি। নেই কোনও স্বচ্ছতা। এই সব প্রবলেম থাকবে।’’ বক্তা দেশের প্রাক্তন রেলমন্ত্রী দীনেশ ত্রিবেদী৷

একান্ত সাক্ষাৎকারে টেনে এনেছেন কলকাতার সেতু ভাঙার প্রসঙ্গ৷ তাঁর ব্যক্তিগত অভিমত, ‘‘ভেভলপমেন্ট হচ্ছে না, মেনটেনও হচ্ছে না৷ যদি ডেভলপমেন্ট না থাকে, যদি মেনটেন না হয় তাহলে তো আস্ত ব্রিজ ভেঙে পড়বেই৷’’ কটাক্ষ করেছেন, ‘‘পয়সা নেই৷ এটা দেউলিয়ার সরকার৷’’ কিভাবে বাংলার স্বচ্ছতা আসবে বাতলে দিয়েছেন তাও৷ দীনেশের কথা, ‘‘যেদিন অডিট চলে আসবে, সেদিন দেখবেন সব ঠিক হয়ে যাবে৷ স্বচ্ছতা চলে আসবে৷’’

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, বুধবার বিজেপির রাজ্য অফিসে সাংবাদিক বৈঠক থেকে রাজ্যের দুর্নীতির প্রসঙ্গে সরব হয়েছিলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ তথা বালুরঘাটের বিজেপি বিধায়ক ড: অশোক লাহিড়ি৷ সেখানেই অশোকবাবুকে ১৬ আনা সমর্থন জানিয়ে দীনেশ বলেন, ‘‘ তৃণমূলের সরকারের আলাদা একটা মন্ত্রক দরকার, এত দুর্নীতি দেশের কোনও রাজ্যে দেখা যায় না৷ ওদের যা অবস্থা তাতে তো হাইকোর্টের বাইরে একটা মন্ত্রককেই বসিয়ে রাখা উচিত৷’’ অভিযোগ করেছেন, ‘‘ব্রিটিশ আমলের পর কলকাতার পাইপ লাইনেরও বদল ঘটেনি৷’’

অভিযোগ করেছেন, রাজ্যে কোনও কর্ম সংস্থান নেই৷ বাড়ছে বেকারত্ব৷ এহেন আবহে অনুদান দিয়ে মানুষের কর্ম সংস্থানকে আরও নষ্ট করে দেওয়ার চেষ্টা চলছে৷ অভিযোগ করেছেন, ‘‘সবাইকে ভিখারি বানানোর চেষ্টা হচ্ছে৷’’ পুরভোটের মুখে তৃণমূলের প্রাক্তন সতীর্থের এহেন বক্তব্যকেই হাতিয়ার করতে চলেছে গেরুয়া শিবির৷ তবে তাতে ভোটবাক্সে কতখানি প্রভাব পড়বে সেই প্রশ্ন অবশ্য রয়েই যাচ্ছে৷ কারণ, বিধানসভার পর থেকে বাংলাজুড়ে ক্রমেই অস্তমিত গেরুয়া হাওয়া৷

আরও পড়ুন: বাসর ঘরে ঢোকা হল না নাবালিকা দম্পতির…