উত্তপ্ত খেজুরি, রাতভর চলল গুলি ও বোমাবাজি, আতঙ্কিত এলাকার বাসিন্দারা

0
89

খেজুরি: ২৪ নভেম্বর হার্মাদ দিবস। আর সেই দিবসকে কেন্দ্র করেই বুধবার রাত থেকে দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়ে উঠল খেজুরি। অভিযোগ, রাতভর বাড়ি ভাঙচুর, বোমাবাজি ও গুলি চলল খেজুরি সহ বিস্তীর্ণ এলাকায়। তৃণমূল ও বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন। উত্তেজনা থাকায় এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী ও র‍্যাফ।

বুধবার হার্মাদ দিবস উপলক্ষে তৃণমূল ও বিজেপি পৃথক পৃথক সভা করে। বিজেপি সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে তৃণমূলের হার্মাদ দিবসের সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র ও অখিল গিরির সহ এক ঝাঁক তৃণমূল নেতৃত্বরা।

- Advertisement -

সূত্রের খবর, খেজুরি ২ ব্লকের কটকা দেবীচক, গোরাহাট জলপাই ও মুণ্ডমারি একাধিক গ্রামে ভাঙচুর করা হয় বাড়ি। রাতভর বোমাবাজি ও গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। বোমাবাজি ফলে ভেঙে পড়েছে একের পর এক বাড়ি। আতঙ্কিত রয়েছেন এলাকায় বাসিন্দারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছে। কাঁথি সাংগঠনিক জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক তথা খেজুরির বিজেপি নেতা তাপস দলাই বলেন, “রাতের অন্ধকারে এলাকা দখল করতে তৃণমূলের কিছু হার্মাদ বাহিনী বিজেপি কর্মীর বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি করে। ভাঙচুর করে একের পর এক বাড়ি। এলাকার মানুষদের লক্ষ করে গুলি চালায়। পুলিশকে জানানোর পরও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। এলাকার বাসিন্দারা রীতিমতো আতঙ্কিত রয়েছেন৷’’

পাল্টা হিসেবে তৃণমূল নেতা তথা জেলা পরিষদের সদস্য পার্থপ্রতিম দাস বলেন, “এলাকার দখল নিতে বিজেপির হার্মাদরা এলাকায় বোমাবাজি করছে। রাতভর বিজেপিরা হার্মাদরা তৃণমূল কর্মীর বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি করে।’’ খেজুরি থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, “পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে৷ চলছে পুলিশি টহল৷ অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে৷’’

আরও পড়ুন: Corruption in Bengal: বাংলায় দুর্নীতির মুক্তি কোন পথে, জানালেন মমতার প্রাক্তন সতীর্থ