দিঘায় হোটেলের বন্ধ ঘর থেকে উদ্ধার পর্যটকদের ঝুলন্ত মৃতদেহ, চাঞ্চল্য সৈকত নগরীতে

0
258

মিলন পণ্ডা, দিঘা: সৈকত নগরী নিউ দিঘার হোটেল থেকে এক পর্যটকের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হল। মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে সৈকত নগরী দিঘায়। ঠিক কি কারণে ওই পর্যটক আত্মঘাতী হলেন তা স্পষ্ট নয়। পরিবারের সদস্যরা হোটেলের দরজা ভেঙে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ জানিয়েছে মৃত পর্যটকের নাম জয় কর্মকার (২২)। তার বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরের গুমা পল্লী এলাকায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে দিঘা থানার পুলিশ। পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার সকালে অশোকনগরের একদল পর্যটক দিঘায় বেড়াতে আসেন। এরপর তারা নিউ দিঘার একটি হোটেলে ওঠেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পরিবারের সদস্যরা দিঘার সি-বিচে বেড়াতে গেলেও শারীরিক অসুস্থতার কারণে জয় হোটেলেই থেকে যান৷ পরে পরিবারের সদস্যরা ফিরে এসে দেখে হোটেলের দরজা বন্ধ। ডাকাডাকি করার পরও মেলেনি কোনও সাড়া। এরপর হোটেলকর্মীদের সহযোগিতা হোটেলের দরজা ভেঙে দেখে সিলিং ফ্যানের গামছার ফাঁস লাগানো অবস্থায় ওই যুবকের দেহ। দ্রুত উদ্ধার করে দিঘা হাসপাতালে নিয়ে আসেন পরিবারের সদস্যরা থেকে হোটেল কর্মীরা। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনার খবর পেয়ে আসে দিঘা থানার পুলিশ।

মৃত যুবকের ভাই সাগর কর্মকার বলেন, ” ঠিক কি কারণে দাদা আত্মঘাতী হল তা জানা নেই। শরীর অসুস্থ থাকার কারণে দাদা সন্ধ্যায় বেড়াতে যেতে রাজি হয়নি। কিছুক্ষণ মধ্যে ফিরে এসে দেখি হোটেলের দরজা বন্ধ। দীর্ঘক্ষন ডাকাডাকি করার পর কোনও সাড়া না মেলায় হোটেলকর্মীদের সাহায্যে দরজা ভেঙে দেখি দাদা ঝুলছে। প্রত্যেক পরিবারের যে রকম অশান্তি হয় সেরকম একটু ঝামেলা হয়েছিল। এরকম ঘটনা ঘটবে তা ভাবতে পারিনি৷’’ দিঘা থানার এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, “কি কারণে ওই পর্যটক আত্মঘাতী হল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে৷” ঘটনার জেরে সৈকত শহরে নতুন করে ছড়িয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য৷

আরও পড়ুন: কাঁচা বাদাম এভাবে স্বপ্ন পূরণ করবে ভাবেননি ভুবন বাদ্যকর

আরও পড়ুন: অন্য বিধায়কদের চাপ বাড়িয়ে ‘জনতার দরবার’ চালু করছেন Babul Supriyo