অনুব্রতকে জেরা করতে আসানসোল জেলে দিল্লির ED আধিকারিকরা

0
31
Anubrata Mandal

খাস ডেস্ক: গরুপাচার মামলায় তৎপর ED! এবার অনুব্রতকে জেরা করতে আসানসোল জেলে দিল্লির ইডি অফিসাররা। সূত্রের খবর, গতকাল রাতেই কলকাতায় পৌঁছান ED আধিকারিকরা। দিল্লি থেকে জেরা করতে তিন তদন্তকারী অফিসার এসেছেন। ইতিমধ্যেই তাঁরা অনুব্রতকে জেরা করার জন্য ৪ পাতার একটি প্রশ্নের তালিকা তৈরি করেছেন। এমনটাই ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে।

বিস্তারিত খবর, লাইভ ভিডিও সহ সমস্ত রকম আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ: https://www.facebook.com/khaskhobor2020/

- Advertisement -

গরুপাচার মামলায় একের পর এক অনুব্রত ঘনিষ্ঠদের তলব করছে তদন্তকারী আধিকারিকরা। কখনও দিল্লির অফিসে ডেকে কখনও কলকাতায় কোনও অস্থায়ী ক্যাম্পে ডাক পাঠাচ্ছে অনুব্রত ঘনিষ্ঠদের। ED আধিকারিকদের দাবি, অনুব্রত ঘনিষ্ঠদের জেরা করলেই একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসবে। শুধু তাই নয়, এই গরুপাচার মামলায় পর পর তিনদিন দিল্লিতে ইডির জেরার মুখে পড়েন অনুব্রত কন্যা সুকন্যা।

আরও পড়ুন-বাড়ছে আক্রান্ত-মৃতের সংখ্যা, ফের Dengue সচেতনতা নিয়ে মিছিলে ফিরহাদ

তদন্তকারীদের দাবি, গরুপাচার কাণ্ডের কোটি কোটি টাকার লেনদেন সম্পর্কে সমস্ত আজানা তথ্য প্রকাশ্যে আনার জন্য অনুব্রত সহ তাঁর ঘনিষ্ঠদের জেরা করা হচ্ছে। এছাড়াও আধিকারিক সূত্রের খবর, অনুব্রত ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী ও কর্মচারীদের অ্যাকাউন্টেও বিপুল পরিমাণ হিসেব বহির্ভূত টাকা রয়েছে। গরুপাচারের টাকা এই সব অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেই করা হত। কারোর কারোর বেতন ১০ হাজার হলেও তাঁদের অ্যাকাউন্টে বিপুল পরিমাণ হিসেব বহির্ভূত টাকা রয়েছে। এই হিসেব বহির্ভূত বিপুল পরিমাণ টাকার লেনদেনের পিছনে অনেক অজানা তথ্য রয়েছে বলে অনুমান করছেন আধিকারিকরা।

সারাদিনের সমস্ত খবরের আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন খাস খবর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor

একইসঙ্গে তৃণমূল নেতার ঘনিষ্ঠদের নামে একাধিক জায়গায় কোনও সম্পত্তি রয়েছে কি না, তাও তদন্ত শুরু করেছে আধিকারিকরা। আদিকারিকদের অনুমান, এর আগেও তৃণমূল নেতার বাড়ির পরিচারক-পরিচারিকাদের অ্যাকাউন্টও ব্যবহার করে বিপুল টাকা লেনদেন করেছেন। পরিবারের সদস্য থেকে শুরু করে আত্মীয়, ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী ও কর্মচারী, সকলের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে বড় অঙ্কের টাকা লেনদেন করেছেন অনুব্রত বলে ধারনা করছেন আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন-আপাতত বহাল থাকবে সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশ, মেনকা মামলায় জানাল হাইকোর্ট

তাই এবার অনুব্রতকে গরুপাচার মামলা সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্ন করবেন আধিকারিকরা। এত টাকা কোথা থেকে এল? কিংবা এর পিছনে আর কে কে জড়িত রয়েছে? এছাড়াও কোথা থেকে ওই সমস্ত অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকত? এই সবস্ত বিষয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই সেই সংক্রান্ত ৪ টি পাতার একটি প্রশ্ন তৈরি করেছেন আধিকারিকরা।