জামিনের আবেদন খারিজ, ফের জেল হেফাজত মানিকের

0
18

খাস ডেস্ক:বারংবার অবেদন জানিয়েও মিলল না জামিন। নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় ফের একবার প্রাক্তন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya) জামিনের আর্জি খারিজ করল বিচারপতি। মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya) জামিনের আর্জি খারিজ করে আগামী ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ আদালত।

বিস্তারিত খবর, লাইভ ভিডিও সহ সমস্ত রকম আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ: https://www.facebook.com/khaskhobor2020

- Advertisement -

এদিন আদালতে প্রাক্তন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya) জামিনের আর্জি জানিয়েছিলেন আইনজীবী। মানিকের আইনজীবী আদালতে জানান, “তদন্ত চলতেই থাকবে, ততদিন কি জেলেই থাকবে আমার মক্কেল?” কিন্তু অন্যদিকে, আদালতে মানিকের আইনজীবীর আর্জির পাল্টা বিস্ফোরক দাবি করেছেন ইডি। ইডির আইনজীবী এদিন আদালতে জানায়, ‘প্রতিদিন দুর্নীতির অঙ্ক বেড়েই চলছে। ৩০ কোটি টাকার সম্পত্তি মিলেছে, আরও মিলতে পারে। তবে তদন্ত সময়সাপেক্ষ।’

আরও পড়ুন-ফের মানিকের জামিন নিয়ে জট, আদালতে কি বললেন আইনজীবী…

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১০ নভেম্বর প্রাক্তন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya) জামিনের আবেদন করলেও আদালত তা মঞ্জুর করেনি। মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya) কে আরও ১৪ দিন জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়ে ছিল ব্যাঙ্কশাল আদালত। আজ ২৪ নভেম্বর প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকে ১৪ দিনর জেল হেফাজত শেষে ইডি আদালতে পেশ করল। আর এদিনও মামলার শেষে ফের একবার মানিক ভট্টাচার্যের (Manik Bhattacharya) কে আরও কয়েকদিন জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত।

সারাদিনের সমস্ত খবরের আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন খাস খবর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor

উল্লেখ্য, মানিক-মামলায় ED’র কাছে বিস্ফোরক দাবি করেছিলেন তাঁরই ঘনিষ্ঠ তাপস মণ্ডল। প্রথমে স্বীকার করলেও পরে তাপস জানিয়েছিলেন, “দুর্নীতির টাকা মানিককে নয় পাঠানো হত বোর্ডকে।” পাশাপাশি তিনি আরও দাবি করেছিলেন, “টাকা নিতে মহিষাবাথানের অফিসে লোক পাঠাতেন মানিক। ডিএলএড কলেজে অফলাইনে ছাত্র ভর্তির সব টাকা যেত মানিকের কাছেই। প্রতি ছাত্র পিছু ৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হত তাঁকে।”